আলীকদমে প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষায় ৭ জন ভুঁয়া পরীক্ষার্থী বহিষ্কার 

জয়দেব রানা, আলীকদম করেসপনডেন্ট :

বান্দরবানের আলীকদম উপজেলায় ৭ ভুয়া সমাপনী  পরীক্ষার্থীকে বহিস্কার করা হয়েছে। সোমবার (২৬ নভেম্বর) সমাপনী  পরীক্ষার শেষের দিনে অন্যের নামে পরীক্ষা দিতে আসলে এইসব ভুয়া পরীক্ষার্থীদের শনাক্ত করে বহিস্কার করেন উপজলো নির্বাহী অফিসার মো. নাজিমুল হায়দার।
এসব পরীক্ষার্থীরা সকলেই বিভিন্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৬ষ্ট ৭ম ও ৮ম  শ্রেণীর শিক্ষার্থী। রিচিং আউট অব স্কুল চিলড্রেন (রস্ক) প্রকল্পভুক্ত আলীকদমের পানবাজার তঞ্চঙ্গ্যা পাড়া, সুলতান সর্দ্দার পাড়া,  ভারত মোহন পাড়া আনন্দ স্কুল ও যতীন্দ্র পাড়াসহ একাধিক আনন্দ স্কুল থেকে ভূয়া পরীক্ষার্থী সেজে এরা পরীক্ষা দিচ্ছিল।
বহিস্কার হওয়া শিক্ষার্থীরা হল, নুর ফাতেমা বেগম, রোল নং- ৫৩৪, হালিমা বেগম রোল নং- ৫২৩, জান্নাতুল ফেরদৌস রোল নং- ৫১৫, রুজিনা তংচংগ্যা রোল নং- ৫৯৪, আয়েশা সিদ্দিকা রোল নং- ৫১৬, সাবিনা আক্তার রোল নং- ৫৯৭, বিমল তারা তঞ্চঙ্গ্যা রোল নং- ৫৯৬। যদিও এই শিক্ষার্থীরা আলীকদম সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় ও বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের বিভিন্ন ক্লাসের শিক্ষার্থী। পরীক্ষা চলাকালীন সংশ্লিষ্ট বিদ্যালয়ের হাজিরা খাতায়ও এরা অনুপস্থিত ছিল মর্মে জানান উক্ত বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা জানান।
জানা গেছে, রস্ক প্রকল্পভূক্ত স্কুলগুলোর বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগ দীর্ঘদিনের। একাধিক আনন্দ স্কুলে ৫ম শ্রেণীর শিক্ষার্থী নেই। স্কুল টিকিয়ে রাখতে হলে সমাপনী  পরীক্ষায় অংশগ্রহণ বাধ্যতামূলক থাকায় সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ মাধ্যমিক বিদ্যালয়গুলো থেকে শিক্ষার্থী সংগ্রহ করে আনন্দ স্কুলের নামে পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সুযোগ দিয়েছে  বলে অভিযোগ উঠেছে। এছাড়াও সঠিক যাচাই যাচাইয়ের অভাবে প্রতিবছর এই অনিয়ম হয়ে আসছে এবং সংশ্লিষ্ট  কিছু প্রাথমিক   বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকরা বিষয়টি জেনেও চুপচাপ থাকেন কারণ তাহারা উক্ত আনন্দ স্কুলগুলো থেকে বিশেষ অর্থনৈতিক  সুবিধা ভোগ করেন বলে উক্ত স্কুলের শিক্ষক ও কর্মকর্তারা এই অনিয়মের  সুযোগ পান বলে জানান শিক্ষানুরাগীরা।
আনন্দ স্কুলগুলো পরিদর্শনের দায়িত্বে থাকা এক ট্রেনিং কো-অর্ডিনেটর ছাড়াও উপজেলা শিক্ষা অফিসার ও পার্শ্ববর্তী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকরা দায়িত্বে আছেন। তাদের দায়িত্ব পালনের বিষয়েও নানা প্রশ্ন উঠেছে সচেতন মহলে। আলীকদম উপজেলায় এবার তিনটি কেন্দ্র থেকে ১ হাজার ২২২ জন ছাত্র-ছাত্রী প্রাথমিক সমাপনী   পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে। এরমধ্যে ৫৬৫ জন ছাত্র এবং ৫৫৭ জন ছাত্রী। এছাড়া এবতেদায়ীতে ৫৬ জন পরীক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেছে।
এই বিষয়ে আলীকদম উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ নাজিমুল হায়দার বলেন, আনন্দ স্কুলের ৭ জন ভুয়া পরীক্ষার্থীকে বহিস্কার করা হয়েছে। এই অনিয়মের সাথে জড়িতদের ব্যাপারে আরো তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
আপনার মন্তব্য দিন