ক্ষমতাধর নারীর তালিকায় চার ধাপ উন্নতি শেখ হাসিনার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :

বিশ্বের শীর্ষ ক্ষমতাধর একশ নারীর তালিকায় গত বছরের চেয়ে চার ধাপ উন্নতি হয়েছে বাংলাদেশের তিনবারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার। মঙ্গলবার মার্কিন প্রভাবশালী সাময়িকী ফোর্বস ২০১৮ সালের ক্ষমতাধর ১০০ নারীর তালিকা প্রকাশ করেছে। এই তালিকায় গত বছরের চেয়ে চারধাপ এগিয়ে ২৬তম অবস্থানে উঠে এসেছেন শেখ হাসিনা।

ফোর্বসের ক্ষমতাধর নারীর তালিকায় ২০১৭ সালে ৩০, ২০১৬ সালে ৩৬ এবং ২০১৫ সালে ৫৯তম অবস্থানে ছিলেন তিনি।

মার্কিন এই সাময়িকীর ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে, গত বছর মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গা শরণার্থীদের জন্য সহায়তা দিয়েছেন শেখ হাসিনা ওয়াজেদ। বাংলাদেশে তাদের আশ্রয়ের জন্য দুই হাজার একর জমি বরাদ্দ দিয়েছেন তিনি। এখন তিনি রোহিঙ্গাদের নিরাপদ প্রত্যাবাসনের জন্য কাজ করছেন। তবে তিনি বলেছেন, রোহিঙ্গাদের স্থায়ী আশ্রয়ের অতিরিক্ত এ বোঝা বহন করতে পারবে না বাংলাদেশ।

sheikh-hasina-forbes

জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঞ্জেলা মেরকেল ও ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মের অবস্থানের পরিবর্তন ঘটেনি। গত বছরের ন্যায় ক্ষমতাধর এ দুই নারী রয়েছেন প্রথম এবং দ্বিতীয় স্থানে। ব্রেক্সিট ইস্যুতে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনার মাঝে অনেকটা অপ্রত্যাশিতভাবে গত বছর ফোর্বসের এই তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে উঠে আসেন থেরেসা মে। ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে যুক্তরাজ্যের বেরিয়ে যাওয়ার মতো জটিল ও ঐতিহাসিক যাত্রা ‘ব্রেক্সিট’ প্রক্রিয়ায় দেশটির নেতৃত্ব দিচ্ছেন তিনি।

তালিকায় তৃতীয় স্থানে রয়েছেন আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের (আইএমএফ) ব্যবস্থাপনা পরিচালক ক্রিস্টিন লাগার্দ। এছাড়া চতুর্থ স্থানে রয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের জেনারেল মটরসের চেয়ারপারসন ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) ম্যারি তেরেসা বারা, পঞ্চম স্থানে রয়েছেন ফিডেলিটি ইনভেস্টমেন্টসের সিইও আবিগেইল জনসন এবং ষষ্ঠ স্থানে রয়েছেন মেলিন্ডা গেটস।

মাইক্রোসফটের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ও বিশ্বের শীর্ষ ধনী বিল গেটসের স্ত্রী মেলিন্ডা গেটস ২০১৭ সালে ছিলেন তৃতীয় স্থানে। ফোর্বস বলছে, বিশ্বের শতাধিক দেশে এই সংস্থাটির মাধ্যমে তিনি প্রায় ৪০ বিলিয়ন ডলার দান করেছেন।

রাজনীতি, ব্যবসা-বাণিজ্য, প্রযুক্তি ও মানবসেবার মতো বিভিন্ন ক্ষেত্রে নেতৃত্বের আসনে থাকা বিশ্বের ২৯টি দেশ থেকে ১০০ ক্ষমতাধর নারীর এই তালিকা তৈরি করেছে ফোর্বস।

আপনার মন্তব্য দিন