পহেলা ফাল্গুনে কক্সবাজার সাগর পাড়ে ‘জুটি পর্যটকের মিলন মেলা

নিউজ কক্সবাজার রিপোর্ট :

দেশের অন্যতম পর্যটন কেন্দ্র কক্সবাজার সাগর পাড়ে শুক্রবার ঋতুরাজ বসন্তের প্রথম দিনটি অতিবাহিত হয়েছে এক ভিন্ন আমেজে।

পহেলা ফাগুন আর ১৪ ফেব্রæয়ারির ‘ভালবাসার দিবস’ উপলক্ষে সাগর পাড় থেকে তারকা হোটেলগুলো ‘জুটি পর্যটকের’ ভীড়ে গিজ গিজ করছে। অনেকেরই পোশাক ছিল হলুদ রংয়ের বাসন্তী শাড়ি আর পায়জামা-পাঞ্জাবী।

ফাগুনের প্রথম দিনটির সকাল বেলায় সৈকত স্œান হয়ে পড়ে পর্যটকদের আরেক আনন্দের সময়। আর পড়ন্ত বিকাল থেকেই সৈকত পাড়ের বালুচরে অগণিত সংখ্যক ‘জুটি’র যেন মেলা বসে।

কেউ বালুচরে হাঁটছে, কেউ পর্যটন ছাতায় বসে বা কেউ সাগরের ফেনিল ঢেউয়ের সাথে একাকার হয়ে পড়ে। আবার সন্ধ্যায় তারকা হোটেল গুলোর আয়োজিত অনুষ্টানে যোগ দিয়েও অত্যন্ত উপভোগ্য সময় পার করেন পর্যটক দম্পতিরা।

এদিকে কক্সবাজার সাগর পাড়ের অন্যতম তারকা হোটেল সায়মান বীচ রিসোর্ট ও হোটেল ওশ্যান প্যারাডাইজে পহেলা ফাল্গুন ও বিশ্ব ভালবাসা দিবস উপলক্ষে নানা অনুষ্টানের আয়োজন করে।

হোটেল ওশ্যান প্যারাডাইজের পরিচালক আবদুল কাদের মিশু জানান-‘ দিবসটি উপলক্ষে সাংষ্কৃতিক অনুষ্টান, পিঠা উৎসব ও বুফে খাবার সহ জুটি পর্যটকের জন্য রয়েছে কক্ষ ভাড়ায় বিশেষ ছাড়ের ব্যবস্থাও।’

তিনি জানান, হোটেলের ২১৬ টি কক্ষই পরিপূর্ণ রয়েছে। বেশীর ভাগ কক্ষে জুটি অতিথি ছ্ড়াাও কেবল মাত্র ভালবাসার দিনটি উদযাপনের জন্য হোটেলটিতে ৩৫ টি জুটি (কাপল) অনেক আগেই অগ্রিম কক্ষ ভাড়া নিয়ে উঠেছেন।

চট্টগ্রাম থেকে আসা পর্যটক দম্পতি শফিক রহমান ও শামীমা আকতার জুটি জানান-‘পহেলা ফাল্গুন সাগর পাড়ে কাটানোর ইচ্ছায় এসেছি। আমাদের কাছে আজকের দিনটি এক অনন্য সময়।’

হোটেল সায়মান বীচ রিসর্টের কর্মকর্তা আসাদ জানান-‘২৪৫ টি কক্ষতেই অতিথি রয়েছে। তন্মধ্যে ৩৩ টিতে রয়েছেন বিদেশী অতিথি। বাদবাকীগুলো জুটি অতিথি।

ভালবাসার দিবস উপলক্ষে হোটেলটির পুরো আঙ্গিনাই ফুলে ফুলে সজ্জিত করা হয়েছে। অনুরুপভাবে তারকা হোটেল সী গালেও ভালবাসা দিবস উপলক্ষে নানা অনুষ্টানের আয়োজন করা হয়েছে।

আপনার মন্তব্য দিন