আদালতে ওসি প্রদীপের ফোন আলাপ;  এসটিআই সাহাব উদ্দিনসহ চার পুলিশ প্রত্যাহার

নিজস্ব প্রতিবেদক

সিনহা হত্যা মামলার সাক্ষ্যগ্রহণের সময় আদালতে বরখাস্তকৃত ওসি প্রদীপ মোবাইলে কথা বলায় ৪ পুলিশ সদস্যকে প্রত্যাহার করে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। 

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কক্সবাজার জেলা পুলিশ সুপার মোঃ হাসানুজ্জামান বলেন, আদালতে দায়িত্ব অবহেলার কারণে এক এসটিআইসহ চার পুলিশ সদস্যকে প্রত্যাহার করে জেলা পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়েছে। পাশাপাশি একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্তে দোষী প্রমাণিত হলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। 

এর আগে সোমবার (২৩ আগস্ট), কক্সবাজার জেলার দায়রা জজ আদালতে মামলার প্রথম দিনের সাক্ষ্যগ্রহণ চলার সময় কাঠগড়ায় মোবাইল ফোনে কথা বলেতে দেখা গেছে টেকনাফ থানার বরখাস্ত ওসি প্রদীপ কুমার দাশকে। এ সংক্রান্ত একটি ছবি ভাইরাল হলে দেশজুড়ে আলোচনার জর উঠে।  

ছবিতে দেখা যাচ্ছে, আদালত কক্ষের কাঠগড়ার ভেতরে হাঁটু গেড়ে বসে মোবাইল ফোনে কথা বলছেন বরখাস্ত ওসি প্রদীপ। এ সময় কয়েকজন ব্যক্তি আশপাশে দাঁড়িয়ে ছিলেন।

নাম প্রকাশ না করা শর্তে একজন প্রত্যক্ষদর্শী জানান, মোবাইল ফোনে একের পর এক কল করে কথা বলেছেন, সিনহা হত্যা মামলার এই আসামি। পরনে ছিলো কালো পোলো শার্ট। 

খবর নিয়ে জানা গেছে, বরাখাস্ত ওসি প্রদীপকে মোবাইল ফোনটি সরবরাহ করেছিলেন সেখানেই দায়িত্বরত এক পুলিশ কনস্টেবল। 

বিচার বিভাগীয় বাতায়নে দেওয়া আদালতের আচরণবিধিতে বলা হয়েছে, আদালত চলাকালীন সময়ে মোবাইল ফোন বন্ধ রাখতে হবে। অর্থাৎ, মোবাইল ফোন ব্যবহার করা যাবে না।

এদিকে, আলোচিত এই হত্যা মামলার শেষদিনের সাক্ষ্যগ্রহণ চলছে। সাক্ষী দিচ্ছেন প্রত্যক্ষদর্শী ও মামলার ২ নম্বর সাক্ষী সাহেদুল ইসলাম সিফাত। 

বুধবার (২৫ আগস্ট) সকাল সাড়ে ১০টায় কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মোহাম্মদ ইসমাঈলের আদালতে সিফাতের সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়েছে। গতকাল আংশিক সাক্ষ্য দিয়েছিলেন তিনি।

আপনার মন্তব্য দিন