Warning: Creating default object from empty value in /home/joytiqyk/newscoxsbazar.com/wp-content/themes/NewsSun/lib/ReduxCore/inc/class.redux_filesystem.php on line 29
এক জালেই জেলের ভাগ্য বদল! এক জালেই জেলের ভাগ্য বদল! – newscoxsbazar | নিউজ কক্সবাজার ডটকম
রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ০৩:৩৭ অপরাহ্ন

এক জালেই জেলের ভাগ্য বদল!

Reporter Name
  • Update Time : বুধবার, ২৪ আগস্ট, ২০২২
  • ০ Time View

এখন সাগরে ইলিশ ধরার মৌসুম। কিন্তু দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার কারণে প্রায় ৩ সপ্তাহ সাগরে মাছ ধরতে পারেননি জেলেরা। এখন পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়েছে। কিন্তু সাগরে ভরা মৌসুমেও জেলেদের জালে ধরা পড়ছে না ইলিশ। তবে বঙ্গোপসাগরের টেকনাফে জেলেদের জালে ধার পড়ছে লাল কোরাল মাছ। তাই ট্রলার নিয়ে এখন জেলে ছুটছেন লাল কোরাল শিকারে।

সুজাউদ্দিন রুবেল

মঙ্গলবার (২৩ আগস্ট) কক্সবাজারের টেকনাফের শাহপরীর দ্বীপ-সংলগ্ন বঙ্গোপসাগরে এক জালে ধরা পড়ে ২০০টি লাল কোরাল মাছ। যার ওজন দাঁড়িয়েছে প্রায় ১৫ মণ।

শাহপরীর দ্বীপ মিস্ত্রিপাড়ার বাসিন্দা মো. আতাউল্লাহর ট্রলারে বঙ্গোপসাগরের ‘৯ বাইন’ এলাকায় মাছগুলো ধরা পড়ে। একেকটি মাছের ওজন সাড়ে তিন থেকে পাঁচ কেজি। সব মিলিয়ে মাছের ওজন দাঁড়িয়েছে প্রায় ১৫ মণ। পরে সাগর থেকে মাছগুলো শাহপরীর দ্বীপ মিস্ত্রিপাড়া ঘাটে নিয়ে আসা হয়।

শাহপরীর দ্বীপ মিস্ত্রিপাড়া ট্রলার মালিক সমিতির সভাপতি মোহাম্মদ আইয়ুব এসব তথ্য জানান।

ট্রলারের মাঝি মো. আবদুর রশিদ বলেন, সোমবার ১০ জন মাঝিমাল্লা নিয়ে তারা সাগরে মাছ ধরতে যান। রাতে সাগরের ‘৯ বাইন’ এলাকায় জাল ফেলেন। পরে জেলেরা জাল টেনে তুলতেই দেখতে পান, বড় বড় লাল কোরাল ধরা পড়েছে। পরে ট্রলারে জাল তুলে দেখা যায়, সাড়ে তিন থেকে পাঁচ কেজি ওজনের ২০০টি লাল কোরাল মাছ। মাছগুলোর ওজন প্রায় ৬০০ কেজি।

ট্রলারের মালিক মো. আতাউল্লাহ বলেন, শাহপরীর দ্বীপ মিস্ত্রিপাড়া ঘাট থেকে অনেকগুলো ট্রলার একসঙ্গে সাগরে মাছ ধরতে গেলেও তাঁর ট্রলারেই মাছগুলো ধরা পড়েছে। কয়েক দিন আগেও একই ট্রলারে ১১০টি লাল কোরাল ধরা পড়েছিল। তিনি প্রতি মণ মাছের দাম ৩৩ হাজার ৩০০ টাকা করে চেয়েছেন। নুরুল ইসলাম ও মোহাম্মদ হাসান নামের দুজন ব্যবসায়ী প্রতি মণ মাছ ২০ হাজার টাকা পর্যন্ত দাম বলেছেন। ন্যায্যমূল্য না পেলে বরফ দিয়ে মাছগুলো কক্সবাজার বা চট্টগ্রামে নিয়ে বিক্রয় করা হবে বলে জানান তিনি।

টেকনাফ উপজেলার জ্যেষ্ঠ মৎস্য কর্মকর্তা মোহাম্মদ দেলোয়ার হোসেন বলেন, এক জালে ২০০টি লাল কোরাল ধরা পড়ার খবর তিনি শুনেছেন। সুস্বাদু কোরাল বা ভেটকি মাছের কদর দেশব্যাপী। বঙ্গোপসাগরের গভীর পানির মাছ কোরাল সব সময় হাটবাজারে পাওয়া যায় না। এ জন্য মাছের দাম কিছুটা বেশি।

তিনি বলেন, মাছটি সাধারণত ১ থেকে ৯ কেজি ওজনের হয়। মাছটির বৈজ্ঞানিক নাম Lates calcarifer। এ মাছ উষ্ণমণ্ডলীয় অঞ্চল বিশেষত পশ্চিম প্রশান্ত মহাসাগর ও ভারত মহাসাগরীয় অঞ্চলে দেখা যায়। তাছাড়া এশিয়ার উত্তরাঞ্চল, কুইন্সল্যান্ডের দক্ষিণাঞ্চল ও পূর্ব আফ্রিকার পশ্চিমাঞ্চলেও দেখা যায়।

শাহপরীর দ্বীপ মিস্ত্রিপাড়া ট্রলার মালিক সমিতির সভাপতি মোহাম্মদ আইয়ুব বলেন, এখন সাগরে ইলিশ ধরার মৌসুম হলেও সেভাবে ইলিশের দেখা মিলছে না। গত দুই-তিন দিনে বিভিন্ন ট্রলারে লাল কোরাল ধরা পড়ছে। তাই এলাকার অধিকাংশ ট্রলার কোরাল ধরতে ছুটছে।

 

 

Please Share This Post in Your Social Media

Comments are closed.

More News Of This Category
© All rights reserved © 2022 News Coxsbazar
Theme Customized By Shah Mohammad Robel