কক্সবাজারের ঈদগাঁও বাজারে ভয়াবহ অগ্নিকান্ড

শাহজাহান চৌধুরী শাহীন।।

কক্সবাজার জেলার অন্যতম বৃহত্তম বাণিজ্য কেন্দ্র ঈদগাঁও বাজারে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড ঘটেছে। বৃহস্পতিবার (১১ ফেব্রুয়ারী) রাত পৌণে ১টার দিকে শুরু হওয়া এ অগ্নিকাণ্ডে বাজারের জালালাবাদ ইউনিয়নের বাঁশঘাটা রোডের বেশকিছু দোকান ভস্মীভূত হয়েছে। ফার্নিচারের দোকানের  বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে।আগুনে বিভিন্ন দোকানের ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ প্রায় কোটি টাকা ছাড়িয়ে যেতে পারে বলে ধারণা ব্যবসায়ীদের। তবে এ ঘটনায় কোনো হতাহতের খবর এখনো পাওয়া যায়নি।ক্ষতিগ্রস্থ ব্যবসায়ীরা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, আগুন লাগার সঙ্গে সঙ্গে কক্সবাজার ফায়ার সার্ভিসকে ফোন দেয়া হয়। কিন্তু প্রায় দেড় ঘণ্টা পরে ঘটনাস্থলে পৌঁছে অগ্নিনির্বাপক দল। ততক্ষণে পুড়ে ছাই হয়ে যায় সবকিছু। এলাকাবাসী ও ফায়ার সার্ভিসের যৌথ প্রচেষ্টায় ভোর সাড়ে ৪টার দিকে আগুন সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে এসেছে।
এলাকাবাসী সুত্রে জানা গেছে,

জেলার বৃহৎ বাণিজ্যিক কেন্দ্র হিসেবে ঈদগাও বাজারটি সর্বমহলে পরিচিত। ঈদগাঁও বাস স্টেশন সহ বাজারে ব্যাংক, হাসপাতাল, বিভিন্ন মার্কেট,শপিংমলসহ প্রায় ১২ হাজারেরও অধিক ছোট বড় ব্যবসা প্রতিষ্ঠান রয়েছে। অন্যদিকে পার্শবর্তী এলাকায় রয়েছে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্টান।এবং ঈদগাও থানা। এসবকে ঘিরে গড়ে উঠেছে বিভিন্ন আবাসিক এলাকা। সব মিলে এটি একটি ব্যস্ততম উপ শহরে পরিনত হয়েছে। এ এলাকায় স্বাধীনতার ৫০ বছর পেরিয়ে গেলেও একটি ফায়ার সার্ভিস স্টেশন নির্মানে কেউ কথা রাখেনি, এমন অভিযোগ স্থানীয় এলাকাবাসী সহ ব্যবসায়ীদের।মানুষের জানমালের ক্ষয়ক্ষতি কমিয়ে আনতে একটি ফায়ার সার্ভিস স্টেশন নির্মাণ জরুরি হয়ে পড়েছে।
গত কয়েক বছরে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় বেশকিছু প্রাণহানিসহ শতকোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। বৃহত্তর ঈদগাঁও এলাকার বিভিন্ন বাজার কিংবা বাসা বাড়ীতে অগ্নিকান্ডের ঘটনায় প্রানহানিসহ বিপুল পরিমাণ ক্ষয়ক্ষতি হয়ে আসলেও
ফায়ার সার্ভিস স্টেশন স্থাপনে জনগুরুত্বপূর্ণ এমন একটি দাবির প্রতি কেউ নজর দিচ্ছে না।

আপনার মন্তব্য দিন