কক্সবাজারে ৩০২টি মন্ডপে মন্দিরে শারদীয় দূর্গোৎসবের প্রস্তুতি

শাহ মুহাম্মদ রুবেল, চট্রগ্রাম
কক্সবাজার জেলায় ৩০২টি মন্ডপে মন্দিরে স্বাস্থ্যবিধি মেনে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে বাঙালী সনাতনী সম্প্রদায়ের বৃহত্তম ধর্মীয় অনুষ্ঠান শারদীয় দুর্গোৎসব। এরমধ্যে ১৪৯টি প্রতিমা ও ১৫৩টি ঘট পূজোর জন্য চলছে প্রতিমা সাজানোর কাজ। প্রতিমা তৈরির কাজ শেষে চলছে রংতুলির আঁচড়ে সাজানো আর মন্দিরের সাজসজ্জার কাজ। মন্ডপগুলো সাজানো হচ্ছে বর্নিল সাজে।
আর মাত্র কয়েকদিন পর ১১ অক্টোবর থেকে শুরু হতে যাচ্ছে বাঙালী সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা। এ উৎসবকে ঘিরে কক্সবাজারের আটটি উপজেলায় নেয়া হয়েছে ব্যাপক প্রস্তুতি। প্রতিমা তৈরি শেষে চলছে রংতুলির আঁচড় আর মন্দিরের সাজসজ্জার কাজ। কক্সবাজার জেলায় ৩০২টি মন্ডপ সাজানো হচ্ছে বর্নিল সাজে। এরমধ্যে ১৪৯টি প্রতিমা ও ১৫৩টি ঘট পূজোর জন্য চলছে প্রতিমা সাজানোর কাজ। শারদীয় দুর্গাপূজাকে সুন্দরভাবে উৎসব মুখর পরিবেশে উদযাপনে সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। প্রতিবছরের ন্যায় নানা আয়োজন শেষে ১৫ অক্টোবর বিজয়া দশমীতে প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে সম্পন্ন হবে শারদীয় দুর্গাপূজা।
বাঙালী সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় অনুষ্ঠান শারদীয় দুর্গাপূজাকে সুন্দরভাবে উৎসব মুখর পরিবেশে উদযাপনে সকল প্রস্তুতি সম্পন্নকরা হয়েছে। প্রতিবছরের ন্যায় বাঙালী সনাতন ধর্মাবলম্বীদের এ উৎসব ১৫ অক্টোবর বিজয়া দশমীতে প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে সম্পন্ন হবে।
কক্সবাজার জেলা পুজা উদ্যাপন পরিষদের সভাপতি এ্যাডভোকেট রনজিৎ দাশ বলেন, পূজারী, ভক্ত ও দর্শনার্থীদের নিরাপত্তায় মন্দিরগুলোতে নেয়া হয়েছে বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা। ১১ অক্টোবর শুরু হওয়া শারদীয় দুর্গাপূজা ১৫ অক্টোবর বিজয়া দশমীতে প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে সম্পন্ন হবে। প্রতিবছরের ন্যায় এবারও শান্তিপূর্ণভাবে পুজা উদ্যাপন করতে পারবে বলে আশাবাদ সনাতন ধর্মালম্বীদের।
আপনার মন্তব্য দিন