গ্রামে শহরের ছোঁয়া, উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে চান নুর হোসেন চেয়ারম্যান

নিজস্ব প্রতিবেদক 

আগামী ২০ সেপ্টেম্বর আসন্ন ৪ নম্বর সাবরাং ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে জনগণের মনোনীত প্রার্থী নুর হোসেন চেয়ারম্যানের শেষ নির্বাচনী জনসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার  (১৮ সেপ্টেম্বর ) সন্ধ্যায় নয়াপাড়া সরকারী প্রাথামিক বিদ্যালয় মাঠে এই জনসভা অনুষ্ঠিত হয়। 

নজরুল ইসলাম ও আব্দুল বাসেতের সঞ্চালনায় মাওলানা মাহবুবুর রহমান মাজহারীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত জনসভায় হাফেজ আতাউর রহমানের কোরআন তেলাওয়াতের মধ্য দিয়ে শুরু হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা পরিষদ সদস্য আলহাজ্ব  শফিক মিয়া। 

সন্ধ্যায় জনসভা শুরু হলেও বিকাল থেকে লোকে লোকারণ্য হয়ে উঠেছে নয়াপাড়া স্কুল মাঠ ও এর আশপাশের এলাকা। নুর হোসেন চেয়ারম্যানের শেষ নির্বাচনী জনসভায় অংশ নিতে আসা মানুষের কোলাহলে পুরো এলাকাই যেন গমগম করছে। নেতা-কর্মীদের হাতে শোভা পাচ্ছে আনারস প্রতীক। 

নয়াপাড়া স্কুল মাঠ সকালের দিকে নেতা-কর্মীশূন্য থাকলেও বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে এ চিত্র পাল্টাতে থাকে। প্রথম দিকে নেতাকর্মীরা যার যার মতো মাঠের সামনে এসে হাজির হতে থাকলেও এক পর্যায়ে খণ্ড খণ্ড মিছিল আসা শুরু হয়। সন্ধ্যার মধ্যেই নয়াপাড়া স্কুল মাঠ ভরে যায় কানায় কানায়। এদিকে অনেক ব্যবসায়ীকে দোকান-পাঠ বন্ধ রেখে এই নির্বাচনী জনসভায় অংশ নিতে দেখা গেছে।

নির্বাচনী জনসভায় বক্তারা বলেন, নুর হোসেন চেয়ারম্যান বিগত ৫ বছরে রাস্তাঘাটের ব্যাপক উন্নয়নসহ বাল্যবিবাহ দূরীকরণ, বয়স্ক ভাতা, বিধবা ভাতা সহ বিভিন্ন সরকারি অনুদান সুষম বন্টন করেছেন। এছাড়াও সালিশি মীমাংসায় তিনি কারো পক্ষপাতিত্ব করেননি তার অধীনস্থ কারো দ্বারা যেন কেউ ন্যায়বিচার থেকে বঞ্চিত না হয় এ বিষয়ে খেয়াল রেখেছেন। অত্র ইউনিয়নে নুর হোসেন চেয়ারম্যানের ব্যাপক জনপ্রিয়তা রয়েছে। এত জনপ্রিয়তার কারণে জনগণের খেদমত করার মানসিকতা নিয়ে আবারো আসন্ন ইউপি নির্বাচনের তিনি চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হয়েছেন। এছাড়াও করোনাকালীন মহাদুর্যোগে নিজস্ব অর্থায়নে দিয়ে গেছেন তিনি নজিরবিহীন সেবা। অত্র ইউনিয়নে উন্নয়নমূলক কাজ হয়েছে বিধায় পুনরায় নুর হোসেন চেয়ারম্যান কে ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চাই সাবরাংবাসী।

নুর হোসেন চেয়ারম্যান বলেন, ‘আমি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার পরে গত বছরগুলোতেও ইউনিয়নবাসীর পাশে ছিলাম। সুখে-দুঃখে, আপদে-বিপদে এলাকার জনগন সবসময় আমাকে পাশে পেয়েছে। এলাকার উন্নয়ণ আমার দ্বারা যতটুকু সম্ভব আমি করেছি। এই নির্বাচনেও যদি এলাকার মানুষ আমাকে নির্বাচিত করে তবে আমি উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে পারবো। আমি বিশ্বাস করি গত নির্বাচনেও এলাকার মানুষ আমাকে ভালোবেসে নির্বাচিত করেছেন এবারও নির্বাচিত করবেন।’ শিক্ষার উন্নয়নে সব সময় আমি নিজেকে নিয়োজিত রেখেছি। এলাকার মানুষের উন্নয়নে আগামীতেও কাজ করে যাবো।’

তিনি আরো বলেন আমি আগামীতে পুনরায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলে রাস্তাঘাট শিক্ষা-দীক্ষার ব্যাপক উন্নয়নসহ অত্র ইউনিয়নকে পরিপূর্ণ ডিজিটাল আদর্শিক ইউনিয়ন হিসেবে গড়ে তুলবো। বিশেষ করে সমাজের অবক্ষয় রোধে মাদকের ব্যাপারে সরকার কর্তৃক ঘোষিত জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ করবো।

এই শেষ নির্বাচনী জনসভায় উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন, সাবরাং ইউনিয়নের ৯ টি ওয়ার্ডের মেম্বার প্রার্থীগণ সহ প্রমুখ। শেষে মাওলানা মাহবুবুর রহমান মাজহারীর মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হয় এই নির্বাচনী জনসভা।

আপনার মন্তব্য দিন