চকৱিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় ২৪ ঘন্টার ব্যবধানে ৪জন নিহত আহত ১৩

মো: নাজমুল সাঈদ সোহেল, চকরিয়া প্রতিনিধি।।

কক্সবাজারের চকরিয়ায় চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের কৈয়ারবিল ইউনিয়নের ইসলাম নগর স্টেশন এলাকায় যাত্রীবাহি বাস ও হাইয়েসের মধ্যে মুখোমুখি সংঘর্ষে চালকসহ দুইজন নিহত হয়েছে। এ সময় আরও ১২ যাত্রী আহত হয়। দূর্ঘটনায় বাসটি আংশিক ক্ষতিগ্রস্থ হলেও হাইয়েস গাড়িটি সম্পূর্ণ দুমড়ে মুচড়ে যায়। নিহত এবং আহতরা সবাই হাইয়েসের যাত্রী ছিলেন। শনিবার (২৭ ফেব্রুয়ারী) সকাল পৌনে ৭টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত ব্যক্তিরা হলেন, উপজেলার ডুলাহাজারা ইউনিয়নের উত্তরপাড়া এলাকার মোহাম্মদ হোসেনের ছেলে ও হাইয়েস চালক এনামুল হক (২২) এবং পেকুয়া উপজেলার শিলখালী ইউনিয়নের তারাবুনিয়া পাড়া এলাকার চান্দ মিয়ার ছেলে আবু তালেব (৪০)। এ সময় আরও ১২ যাত্রী আহত হয়। তারা হলেন- চকরিয়া পৌরসভার দিগরপানখালী এলাকার সুনিল দাশ (৫২), চকরিয়া পৌরসভার থানা সেন্টার এলাকার আবদুল হাকিম (৩২), স্টেশন পাড়া এলাকার জাফর আলম (৩২), খুটাখালী ইউনিয়নের বাসিন্দা তাফসীর আহামদ (৩০), ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের ছাইরাখালী এলাকার মো.জাকারিয়া (৫২), সাহারবিল ইউনিয়নের বাসিন্দা শুভ (৫০), ডুলাহাজারা ইউনিয়নের মালমুঘাট এলাকার মতিউর রহমান (৬৫), একই এলাকার আবদুর রহিম (২২) ও খুটাখালী ইউনিয়নের ওসমান গনি (২৬)। এছাড়া অন্যান্য আহদের নাম পরিচয় জানা যায়নি। আহতদের উপজেলার বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে বলে জানা গেছে।
এছাড়া গত শুক্রবার (২৬ ফেব্রুয়ারী) সন্ধ্যা ৭টার দিকে একই মহাসড়কের বানিয়ারছড়া আমতলীয়া পাড়া রাস্তার মাথা এলাকায় পিকআপের ধাক্কায় মো. ছোটন (২২) ও শামশুল আলম (২০) নামের দুই মোটরসাইকেল আরোহী যুবক নিহত হয়। এনিয়ে গত দুইদিনে মহাসড়কের চকরিয়া অংশে ঝরেছে চার তাজা প্রাণ। এ সময় আরো তিনজন আহত হয়। বর্তমানে তারা চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসাপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শীৱা জানায়, ঢাকা থেকে কক্সবাজারের উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসা এনা পরিবহনের একটি যাত্রীবাহি বাস শনিবার সকালে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের ইসলাম নগর স্টেশন এলাকায় পৌঁছলে বিপরীত দিক থেকে আসা অপর একটি যাত্রীবাহি হাইয়েসের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এ সময় হাইয়েস গাড়িটি দুমড়ে মুচড়ে গিয়ে ঘটনাস্থলেই চালক ও যাত্রীসহ দুইজন নিহত এবং ১২ যাত্রী আহত হয়। দূর্ঘটনার পরপরই চিরিংগা হাইওয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে নিহতদের উদ্ধার করে ফাঁড়িতে নিয়ে আসে এবং আহতদের বিভিন্ন হাসপাতালে প্রেরণ করে।
চিরিঙ্গা হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (ভারপ্রাপ্ত) এস আই সিরাজুল ইসলাম বলেন, দুর্ঘটনার খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে নিহতদের উদ্ধার করে ফাঁড়িতে এবং আহতদেরকে বিভিন্ন হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। শনিবার দুপুরে আইনী প্রক্রিয়া শেষে নিহতদের লাশ তাদের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। দূর্ঘটনা কবলিত বাস এবং হাইয়েস গাড়িটি আটকের পর জব্দ করে ফাঁড়িতে রাখা হয়েছে বলে তিনি সত্যতা নিশ্চিত করেন।

 

আপনার মন্তব্য দিন