সোমবার, ৪ঠা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
Homeপেকুয়াচাঞ্চল্যকর আবু ছৈয়দ হত্যাকাণ্ড : সাবেক চেয়ারম্যান ওয়াসিমকে চার দিনের রিমান্ড

চাঞ্চল্যকর আবু ছৈয়দ হত্যাকাণ্ড : সাবেক চেয়ারম্যান ওয়াসিমকে চার দিনের রিমান্ড

চকরিয়া প্রতিনিধি:

কক্সবাজারের পেকুয়া উপজেলার মগনামা ইউনিয়নে সংগঠিত চাঞ্চল্যকর আবু ছৈয়দ হত্যা মামলায় সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান শরাফত উল্লাহ ওয়াসিমকে চার দিনের রিমান্ড দিয়েছে আদালত।

বুধবার (১০ জানুয়ারি) দুপুরে চকরিয়ার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের আদালতের বিচারক জাহিদ হোসাইন শুনানি শেষে এ আদেশ দেন। পুলিশ তার সাত দিনের রিমান্ড আবেদন করেছিলো। শরাফত উল্লাহ ওয়াসিম মগনামা ইউনিয়নের সিকদার পাড়া এলাকার কলিম উল্লাহর ছেলে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গত ১০ অক্টোবর পেকুয়া উপজেলার মগনামা ইউনিয়নের আফজলিয়াপাড়া এলাকায় পূর্ব শত্রুতার জেরে আবু ছৈয়দকে ঘরে ঢুকে নৃশংসভাবে কুপিয়ে হত্যা করে সন্ত্রাসীরা। হত্যাকারীরা তাঁর একটি পা কেটে নিয়ে উল্লাস করতে করতে চলে যায়। এসময় তাঁর স্ত্রীসহ চারজনকে গুরুতর আহত করা হয়। এ ঘটনায় ১১ অক্টোবর নিহতের ছেলে ছৈয়দ মোহাম্মদ ইমন বাদী হয়ে ২৪ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতপরিচয় পাঁচজনকে আসামি করে পেকুয়া থানায় মামলা দায়ের করেন। পরে গত ১৯ নভেম্বর শরাফত উল্লাহ ওয়াসিমের সংশ্লিষ্টতার অভিযোগ তুলে হত্যা মামলায় অন্তর্ভুক্ত করতে আদালতে আবেদন করেন বাদী ইমন। বিচারক আবেদনটি আমলে নিয়ে পুলিশকে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছিল। হত্যাকান্ডে নির্দেশ ও অর্থের যোগানদাতা হিসেবে ওয়াসিমের ওয়াসিমের সংশ্লিষ্ট পাওয়ায় মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা বিগত ২৭ ডিসেম্বর ওয়াসিমকে গ্রেপ্তার করে। পরদিন ২৮ ডিসেম্বর ৭ দিনের রিমান্ড আবেদনসহ তাকে আদালতে সোপর্দ করে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা উপ পরিদর্শক (এসআই) মোহাম্মদ ইব্রাহিম বলেন, প্রাথমিক তদন্তে সংশ্লিষ্টতা পাওয়ায় শরাফত উল্লাহ ওয়াসিমকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিলো। তাকে হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সাত দিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়। আদালত এ আবেদনের শুনানি শেষে চার দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

মামলার বাদী ছৈয়দ মোহাম্মদ ইমন বলেন, এজাহার নামীয় আসামি আনিসের ভিডিও বক্তব্যে এ হত্যাকাণ্ডের নির্দেশদাতা ও অর্থদাতা হিসেবে ওয়াসিমের নাম প্রকাশিত হয়। যা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছিলো। তার আগে আমার বাবার একটি ভিডিও বক্তব্যে ওয়াসিমের খুনের পরিকল্পনা ও সম্ভাবনা বিষয় ওঠে এসেছিলো। তার মৃত্যুর পর তা-ও ভাইরাল হয়েছিলো। রিমান্ডে ওয়াসিমের কাছ থেকে হত্যাকাণ্ড সম্পর্কিত সঠিক তথ্য পাবো বলে আমরা আশা করছি।

পেকুয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ ইলিয়াস বলেন, আগামী সাত দিনের মধ্যে এ রিমান্ড শেষ করার নির্দেশ দিয়েছে আদালত। তাই আসামী ওয়াসিমকে অতিসত্বর পুলিশ হেফাজতে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

Recent Comments