চিকিৎসা বঞ্চিত মানুষের আর্তনাদ!

চিকিৎসা বঞ্চিত মানুষের আর্তনাদ!

সেন্টমার্টিন দ্বীপের চিকিৎসা ব্যবস্হা আরো উন্নত করা সময়ের গুরুত্বপূর্ণ দাবী। চুরিকাঘাতে আহত হওয়া ভাতিজা সালাউদ্দিন কে এই রাতের অন্ধকারে নিয়ে যেতে হচ্ছে সুদূর টেকনাফ। টাকা পয়সা থাক বা থাক দ্বীপে যেহেতু চিকিৎসা নেই টেকনাফ কক্সবাজার নেয়া ছাড়া কোন উপায়ও নেই। এইভাবে আর কতদিন চলবে??। এই খারাপ আবহাওয়ায় রাতের অন্ধকারে ঠিকমত টেকনাফ পৌঁছাতে পারবে কিনা আল্লাহ ভাল জানেন। জরুরী ভিত্তিতে দ্বীপের নামেমাত্র থাকা ১০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালটিকে বাস্তবের দশ শয্যার চিকিৎসা ব্যবস্হা অতিশীঘ্রই চালু করার জোর দাবি জানাচ্ছি। দ্বীপে থাকা এত সুন্দর একটি হাসপাতাল কক্সবাজার জেলাতেও নেই দুঃখের বিষয় হচ্ছে যন্ত্রপাতি আর ডাক্তারের অভাবে দ্বীপের অসহায় গরীব মানুষ গুলো যুগের পর যুগ চিকিৎসা সেবা থেকে বন্চিত হচ্ছে।

মাননীয় কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি যত দ্রুত সম্ভব বাস্তব দশ শয্যার চিকিৎসা সেবা সাধারণ জনগণের দৌড়গোড়ায় পৌঁছাতে হাতজোড় করে প্রার্থনা করছি। চিকিৎসা সেবা পাওয়া দ্বীপবাসীর মৌলিক অধিকার। আমাদের অধিকার আমাদের যথাযথ পৌঁছে দিন।

আর যায় হউক জনাব সেন্টমার্টিন ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান মুজিবুর রহমানের কাছে এই সেবা খুব দ্রুতই আশা করছে দ্বীপের অসহায় নিরীহ জনগন। যেভাবেই হউক চেয়ারম্যান মহোদয় কে হাসপাতাল টি পূর্নাঙ্গ চালু করার ব্যবস্হা করতে হবে। কারন আপনি বর্তমানে দ্বীপের চেয়ারম্যান অন্যদিকে সেন্টমার্টিন ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের দীর্ঘদিনের একজন পরিচিত সভাপতি। আপনার ক্ষমতার অভাব নেই এবং ব্যর্থতা দেখানোর কোন সুযোগ নেই। ভুল হলে ক্ষমা করিবেন।

সেন্টমার্টিন থেকেঃ
হাবিব খান, সাবেক ইউপি সদস্য, সেন্টমা্রটিন ইউনিয়ন পরিষদ। টেকনাফ কক্সবাজার।

Related Articles