জঙ্গি দমনে বাংলাদেশ আজ রোল মডেল : র‍্যাব ডিজি

জঙ্গি দমনে বাংলাদেশ আজ রোল মডেল : র‍্যাব ডিজি

প্রতিনিধি, কক্সবাজার।

র‍্যাবের মহাপরিচালক চৌধুরী আবদুল্লাহ আল মামুন বলেছেন, কেবল অভিযান চালিয়ে অপরাধ দমন করা যাবে না। সেই সঙ্গে নানা কর্মমুখী পরিকল্পনার মধ্য দিয়ে অপরাধীদের স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে আনতে হবে। যেমনভাবে জঙ্গিদের মধ্যেও অনেককে স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে আনা হয়েছে। আর এ কারণেই বাংলাদেশ আজ জঙ্গি দমনে রোল মডেল হিসেবে পরিচিত।

তিনি বলেন, একইভাবে সীমান্তবর্তী কক্সবাজারে মাদকমুক্ত সমাজ বিনির্মাণে অভিযানের পাশাপাশি বহুমুখী কর্মপরিকল্পনা বাস্তবায়নের উদ্দেশ্যেই র‌্যাব এবার একটি প্রকল্প হাতে নিয়েছে।

আজ সোমবার বেলা ১১টার দিকে ‘নবজাগরণ : অপরাধকে না বলুন’ শীর্ষক কর্মশালায় তিনি এসব কথা বলেন। কক্সবাজারে র‌্যাব-১৫ এর কার্যালয়ে এই কর্মশালার উদ্ভোধন করেছেন র‌্যাবের মহাপরিচালক।

র‌্যাব মহাপরিচালক আরো বলেন, মাদক নির্মূলে র‌্যাব নিরলস ভূমিকা রাখছে। মাদক সমস্যা একদিনে তৈরি হয়নি, তাই অতি অল্প সময়ে তার নির্মূল সম্ভব নয়, এজন্য প্রলম্বিত অপারেশন প্রয়োজন। তবে কক্সবাজারের বর্তমান পরিস্থিতি আগের চেয়ে অনেক ভালো। আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী ও দেশের সব নাগরিককে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করে মাদকের চাহিদা ও সরবরাহ বন্ধ করতে এগিয়ে আসতে হবে।

প্রশিক্ষণ কর্মশালার উদ্ভোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন র‌্যাব-১৫ এর অধিনায়ক লে. কর্ণেল খায়রুল ইসলাম সরকার। এতে র‌্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন বলেন, নবজাগরণের আওতায় সমাজের পিছিয়ে পড়া, শিক্ষা কার্যক্রম থেকে ঝরে পড়াসহ বেকার ও স্বল্প উপার্জনকারীদের প্রশিক্ষণের মাধ্যমে স্বাবলম্বী করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। তাদের প্রশিক্ষণের মাধ্যমেই দক্ষ জনশক্তি তৈরি করা হবে। এজন্য পর্যটন শিল্পকে কক্সবাজারে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে।

অনুষ্টানের সভাপতি কক্সবাজারের র‌্যাব-১৫ এর অধিনায়ক লে. কর্ণেল খায়রুল ইসলাম সরকার বলেন, গত এক বছরে র‌্যাব কক্সবাজারের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে প্রায় ৬৮ লাখ পিচ ইয়াবা, ১৬ কেজি ক্রিস্টাল মেথ-আইচসহ ৪৫৭ জন মাদক কারবারিকে আটক করেছে। সেই সাথে ১৪টি বিদেশী অস্ত্রসহ ১০৬টি অস্ত্র উদ্ধার করেছে। এ সময়ে র‌্যাব সদস্যরা ৯৮৫ জন আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে।

প্রশিক্ষণ কর্মশালার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে কক্সবাজারের নবাগত পুলিশ সুপার মাহফুজুল ইসলাম, হোটেল সায়মান বিচ রিসর্টের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাহবুবুর রহমান, প্রশিক্ষণার্থী অটো রিকশা চালক নুরুল আমিন ও জান্নাতুল বকেয়া বক্তব্য রাখেন।

Related Articles