টেকনাফে একরাম বাহিনীর হামলায় এনাম মেম্বারের ভাই গুরুত্ব আহত

নিজস্ব প্রতিবেদক

কক্সবাজারের টেকনাফে একরাম বাহিনীর হামলায় এনাম মেম্বারের ভাই সিরাজুল ইসলাম প্রকাশ চান মিয়া (৩২) গুরুত্বর আহত হয়েছে। চান মিয়া টেকনাফ সদর ইউনিয়নের নাজির পাড়া এলাকার মৃত এজাহার মিয়ার ছেলে এবং টেকনাফ সদরের ৮ নম্বর ওর্য়াডের নব নিবাচিত ইউপি সদস্য এনামুল হকের বড় ভাই।

বৃহস্পতিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) বিকালে টেকনাফ সদরের মৌলভী পাড়া ও বড় হাবিব পাড়া বাজার এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, গত ২০ সেপ্টেম্বর সদ্য সমাপ্ত ইউপি নির্বাচনে টেকনাফ সদর ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ডে এনামুল হক ইউপি সদস্য নির্বাচিত হয়। নির্বাচনে তার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ছিল আলী আহমদ। নির্বাচন পরবর্তী সময়ে আলী আহমদ ও তার ভাতিজা একরাম ও তার বাহিনী এনাম মেম্বার ও তার পরিবারের সদস্যদের হুমকি ধমকি দিয়ে এলাকায় একটি ভীতিকর পরিবেশ সৃষ্টি করে। 

এরই সূত্র ধরে বৃহস্পতিবার আজ বিকালে নাজির পাড়া এলাকার এক যুবক সাবরাং বাজার করতে যাওয়ার সময় বড় হাবির পাড়া বাজার এলাকায় পৌঁছালে একরাম ও তার বাহিনী বেধরক মারধর করে।

এই ঘটনার কিছুক্ষন পর সাবরাং থেকে মোটর সাইকেল যোগে বাড়িতে আসার পথে নব নির্বাচিত ইউপি সদস্য এনামুল হকের বড় ভাই সিরাজুল প্রকাশ চান মিয়ার গাড়ীর গতিরোধ করে অতর্কিত হামলা চালায়। এসময় তার ব্যবহারিত মোটরসাইকেল ভাংচুর করা হয়। এবং তাকে অপহরন করে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে আটকে রাখা হয়।

এ বিষয়ে টেকনাফ সদরের ৮ নাম্বর ওর্য়াডের নব-নিবাচিত ইউপি সদস্য এনামুল হক জানান, নির্বাচনের পর থেকে আমাকে ও আমার পরিবারের সদস্যসহ কর্মীদেরকে বিভিন্নভাবে হুমকি ধমকি দিয়ে আসছিল আমার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ও তার ভাতিজা একরাম ও তার বাহিনী। এর ধারাবাহিকতায় আজকে আমার এলাকার এক যুবক ও আমার ভাইকে হামলা করে গুরুতর আহত করে। এই ঘটনার বিষয়ে আইন প্রয়োগকারী সংস্থাকে অবগত করলে তাৎক্ষনিক পুলিশ, র্যাব ঘটনাস্থলে পৌছে এবং প্রায় তিন ঘন্টা পর আহত অবস্থায় আমার ভাইকে উদ্ধার করে।

আহত অবস্থায় তাকে টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়।  তার অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় কক্সবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরন করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন কর্মরত চিকিৎসক।

এ বিষয়ে টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাফিজুর রহমান জানান, ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ সেখানে পাঠানো হয়েছে। এসময় পুলিশ একজনকে উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছি। এ ব্যাপরে ভুক্তভোগীরা অভিযোগ দিলে আইনি ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

আপনার মন্তব্য দিন