টেকনাফ সীমান্তে বিজিবি-মাদক চোরাচালানি গুলি বিনিময়, ১০ হাজার ইয়াবা উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিবেদক।।

টেকনাফ সীমান্তে বুধবার রাতে  মাদক পাচারকারী ও বিজিবির মধ্য গুলিবিনিময়ের পর ১০ হাজার পীচ ইয়াবা একটি এলজি ও একটি খালী খোসা উদ্ধার করা হয়।

বুধবার (৫ মে) রাতে উপজেলার হোয়াইক্যং ইউনিয়নের উনচিপ্রাং সংলগ্ন লম্বাবিল এলাকায় অভিযান চালিয়ে এসব উদ্ধার করে। এ ঘটনায় দুই মাদক পাচারকারীকে আটক করা হয়েছে।

তারা হোয়াইক্যং ইউনিয়নের লম্বাবিল এলাকার মোঃ নুর আলমের ছেলে মোঃ আমির হোসেন (ডায়লা) (৩০) এবং একই এলাকার মুর আহমদের ছেলে মোঃ আজিজ উল্লাহ (৩০)।

২ বিজিবি অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল মোহাম্মদ ফয়সল হাসান খান বলেন, লম্বাবিল এলাকার বেড়ীবাঁধের আড় দিয়ে ইয়াবার বড় চালান আসবে এমন খবর পেয়ে উনচিপ্রাং বিজিবি সদস্যরা ওই এলাকায় টহল দিতে থাকে। এ সময় তিন-চার জনকে নাফনদী পার হয়ে বাংলাদেশ সীমান্তের দিকে আসতে দেখা যায়। বিজিবি সদস্যরা তাদের থামতে বলে। তারা না থেমে বিজিবির উপর অতর্কিত গুলিবর্ষণ শুরু করে। আত্মরক্ষার্থে বিজিবি ও পাল্টা গুলি চালায়। দুই-তিন মিনিট গুলি বিনিময়ের পর দুইজনকে আহত অবস্থায় একটি পলিথিনের ব্যাগসহ আটক করা হয়। অন্যরা দ্রত মায়ানমারের দিকে পালিয়ে যায়।। অনেক খুঁজেও তাদের পাওয়া যায়নি। পরে পলিথিনের ব্যাগ তল্লাশী করে  ১০ হাজার ইয়াবা, একটি এলজি ও একটি খালী খোসা পাওয়া যায়।

এ ঘটনায় আহত বিজিবি সদস্যদের টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথামিক চিকিৎসা প্রদান করা হয়ছে। আটককৃতদের টেকনাফ মডেল হস্তান্তর করা হয়েছে বলে ও জানিয়েছে ২ বিজিবি এই অধিনায়ক।

আপনার মন্তব্য দিন