টেকনাফ স্থলবন্দর থেকে কর/শুল্ক ফাঁকি দিয়ে পাচারকালে ৭২লাখ টাকার অবৈধ মালামাল জব্দ- গ্রেফতার ৩

টেকনাফ স্থলবন্দর থেকে কর/শুল্ক ফাঁকি দিয়ে পাচারকালে ৭২লাখ টাকার অবৈধ মালামাল জব্দ- গ্রেফতার ৩

টেকনাফ প্রতিনিধি : 

টেকনাফে স্থলবন্দর দিয়ে কর/শুল্ক ফাঁকি দিয়ে অবৈধভাবে মিয়ানমার হতে বাংলাদেশে পাচারের উদ্দেশ্যে নিয়ে যাওয়ার সময় বার্মিজ চোরাচালানী মালামালসহ তিনজনকে গ্রেফতার করেছে বর্ডার গার্ড বিজিব। এসময় অবৈধমালামাল বহনের দায়ে একটি ৫০ লাখ টাকা ট্রাক জব্দ করা হয়।

গ্রেফতারকৃত আসামিরা হল, টেকনাফের সাবরাং ইউনিয়নের মৃত আ: ছালামের ছেলে মোঃ ইয়াছিন আরাফাত(২৮), হ্নীলা ইউনিয়নের জাদিমুড়া এলাকার মোঃ নুরুল আলম (৫৫), বান্দরবান জেলার নাইক্ষ্যছড়ি বাইশারীএলাকার মৃত এখলাস মিয়ার ছেলে মোঃ আব্দুল্লাহ (৩৮)।

টেকনাফ ২ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল শেখ খালিদ মোহাম্মদ ইফতেখার বলেন, ৩০ জুন সন্ধার সময় টেকনাফ ব্যাটালিয়নের আওতাধীন হোয়াইক্যং বিওপি’র একটি টহলদল হোয়াইক্যং চেকপোষ্টে নিয়মিত তল্লাশী কার্যক্রম পরিচালনা করছিল। টেকনাফ হতে কক্সবাজারগামী একটি ট্রাক হোয়াইক্যং চেকপোষ্টের আসলে নিয়মিত তল্লাশীর জন্য থামানো হয়। পরবর্তীতে উক্ত ট্রাকটি তল্লাশী করা সময় চালক ও হেলপার এবং সিএন্ডএফ এজেন্ট এর লোজনের আচরণ সন্দেহজনক হলে তল্লাশীর কার্যক্রম এবং জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়

তল্লাশীর একপর্যায়ে সরকারী কর/শুল্ক ফাঁকি দিয়ে রীচ কফি-৫৬৬ প্যাকেট, থামি টু পার্ট-১৩৬ সেট, থামি সিঙ্গেল পার্ট-২২৫ পিস, বেবী সেট-৯০ সেট, তেতুঁলআচার-০২ বস্তা, সুপারী-২,১৫০ কেজি, নুডলস-১৫ বস্তা, শুটকী ৪,২০০ কেজি, লাপাচু ৫০ বস্তা জব্দ করা হয়। মালামালের মুল্য ৭১ লাখ ৬৯ হাজার টাকা। চালক ও হেলপার এবং সিএন্ডএফ এজেন্টকে জিজ্ঞাসাবাদে করা হলে মালামাল গুলি অবৈধভাবে মায়ানমার হতে বাংলাদেশে পাচারের উদ্দেশ্যে নিয়ে যাচ্ছে বলে স্বীকার করে।মালামালের কোন বৈধ কাগজপত্র না থাকায় এবং সরকারী কর/শুল্ক ফাঁকি দিয়ে চোরাচালানী মালামাল বহনেরদায়ে তিনজন ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়।

তিনি বলেন, উদ্ধারকৃত চোরাচালানী মালামাল ও ট্রাকসহ টেকনাফ শুল্ক কার্যালয়ে জমা জমা দেওয়া হবে গ্রেফতারকৃত তিন আসামিকে মামলা রুজু করে টেকনাফ থানায় হস্তান্তর করার হবে বলে জানিয়েছেন।

Related Articles