দৈনিক কক্সবাজারসহ বিভিন্ন অনলাইনে প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ’

দৈনিক কক্সবাজারসহ বিভিন্ন অনলাইনে প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ’

গত ০৭/০১/২০২১ ইং দৈনকি কক্সবাজার ও বিভিন্ন অনলাইন পত্রিকায় প্রকাশিত ‘পোকখালীতে ভুমিদস্যুদের হামলায় তছনছ বৃদ্ধের বসতঘর ও থানায় মামলার সংবাদগুলো আমি নিম্ন স্বাক্ষরকারীর দৃষ্টিগোচর হয়েছে। সংবাদগুলো মিথ্যা, ভিত্তিহীন ও সাজানো বিধায় এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।
গত ০৭/০১/২০২১ ইং তারিখ দৈনিক কক্সবাজার প্রত্রিকা ও বিভিন্ন অনলাইন মাধ্যমে আমাকে জড়িয়ে প্রকাশিত
সস্পূর্ন অবান্তর, বানোয়াট, ভিত্তিহীন, ষড়যন্ত্রমুলক ও উদ্দেশ্যে প্রনোদিত সংবাদটির বিষয়ে আমি নিম্নে ব্যাখা প্রদান করছি।
প্রকৃত বিষয় হলো-উল্লেখিত জায়গাটি গত ২৮/১১/২০২০ ইং ৩৫৩৭/২০ রেজিঃ দলিল মুলে পূর্ববর্তী মালিক মোক্তার আহমদ
গং এর নিকট থেকে ৩৫০০০০/= টাকা পণ মূল্যে ক্রয় করে সরেজমিনে দখল বুজিয়ে নিই। পরবর্তীতে উক্ত জায়গায় অস্থায়ী কাঁচাঘর
নিমার্ণ করে সেখানে পাহারাদার হিসেবে রুমেনা আক্তার, পিতা-মোঃ হোছন ,সাং পূর্ব গোমাতলৗ, পোকখালী ইউনিয়ন,সদর-
কক্সবাজারকে নিয়োগ করে ভোগ দখল অবস্থায় রয়েছি।
উক্ত সংবাদে উল্লেখিত কক্সবাজার সদর মডের থানার মামলা নং-১০ এর বাদী দূর্লোভের বসবর্তী হইয়া নিম্ন তফশীলোক্ত জমিটি
আমাদের অনুপস্থিতির সুযোগে জবর দখল করার জন্য গত ০৪/০১/২০২১ ইং উল্লেখিত সময় আনুমানিক রাত ১১ টায়
একদল মুখোশধারী সশস্ত্র লোকজন আমার পাহারাদার রোমেনা আক্তারকে এলোপাথাড়িভাবে মারধর করে মারত্মক নীলা ফুলা রক্তাক্ত
জখম করতঃ অস্থায়ী কাঁচাঘরটি ভাংচুর করে।
কিন্তু সু-চতুর, দুরন্তর মামলাবাজ এবং ইয়াবা ব্যবসায়ীর মা আমাকে
সামাজিকভাবে হেয়-প্রতিপন্ন করার জন্য এবং অন্যায়ভাবে টাকা আদায়ের কু-মানসে আমাকে জড়িয়ে গত ০৬/০১/২০২১ইং
কক্সবাজারের পাহাড়তলীর বাসিন্দা মনোয়ারা বেগম বাদী হয়ে কক্সবাজার সদর মডেল থানায় (মামলা নং-১০) মিথ্যা মামলা দায়ের করেন। যাহা
আমার জন্য হয়রানীমুলক ও মানহানীকর।
আমি আসন্ন নির্বাচনে একজন সম্ভাব্য প্রার্থী। আমাকে আগামী দিনের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী থেকে বিরত রাখার জন্য প্রতি পক্ষের কু- প্রস্তাবে বসবর্তী
হয়ে উদ্দেশ্যে মূলক ভাবে মিথ্যা মামলাটি দায়ের করেন।
উল্লেখ্য যে, উক্ত মামলায় উল্লেখিত লুটপাটকৃত আমার মালামাল যাহা বাদী নিজের বলে দাবি করেছিলেন সেই মালামাল গুলো
সংবাদদাতার পৈতৃক বাড়ি বশির সওদাগর এর বাড়ি হতে ( হটলাইন নাম্বার- ৯৯৯ ফোন মাধ্যমে অবহিত করলে সদর মডেল থানা হতে)
আগত দায়িত্বরত পুলিশ কর্মকর্তাগণ উদ্ধার করেন।
আমি উক্ত ওয়ার্ডের সাবেক সফল মেম্বার এবং উক্ত ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থী ছিলাম এবং আগামী নির্বাচনে সম্ভাব্য চেয়ারম্যান
প্রার্থী হিসেবে ঘোষণাও দিয়েছি।
আমার জনপ্রিয়তায় ইর্ষান্নীত হয়ে প্রতিপক্ষের কু-প্ররোচনায় বাদী বানোয়াটভাবে উক্ত মিথ্যা মামলাটি দায়ের করেন এবং সাজানো সংবাদ প্রচার করান ।
আমি বলতে চাই, যেখানে আমার সম্পৃক্ততা থাকাতো দুরের কথা উল্টো আমার জমিতে হামলা ভাংচুর করে আমার ক্ষতি করে আমার নামেই পরিকল্পিতভাবে উল্টো মামলা
করেন। যাহা স্থানীয় লোকজনের কাছে ক্ষোভের এবং হাস্যরসের খোরাক হয়েছে।
আমি উক্ত বিষয়ে প্রশাসন বরাবর প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদের মাধ্যমে সুষ্টু বিচার এবং মিথ্যা মামলার বিষয়ে সুষ্টু তদন্তের জন্য দাবীর পাশাপাশি প্রশাসনকে বিভ্রান্ত না
হওয়ার জন্য বিনয়ের সাথে অনুরোধ করছি।

জমির তফসিলঃ
মৌজাঃ গোমাতলী, উপজেলা এবং জেলা- কক্সবাজার।
আর.এস. খতিয়ান নং- ১১৩
আর.এস. দাগ- ১৭৪৯
বি.এস. খতিয়ান নং-১৪৩৩, এমআর খতিয়ান নং-১৬২, বিএস খতিয়ান নাং-৫৮, সৃজিত খতিয়ান নং-১১৩৯
তুলানামুলক বি.এস. দাগনং-
৫২২৪
৬২৮০, দলিল নাং-৩৫৩৭/২০ মূলে সৃজিত খতিয়ান-১৪৩৩
জমির পরিমান-০.১৩৭৪ শতক।
চৌহদ্দীঃ
উত্তরে- মোজাম্মেল হক, পিতা- ছৈয়দ নুর।
দক্ষিণে- মৃত বশির সদর।
পূর্বে – চলাচলের ব্রিক সলিন রাস্তা।
পশ্চিমে- জাফর আলমের বাড়ি।

প্রতিবাদকারী 
শাহে এমরান, পিতা-মৃত আসাদ আলী সিকদার। পূর্ব গোমাতলৗ, পোকখালী ইউনিয়ন, সদর- কক্সবাজার।

আপনার মন্তব্য দিন