ধাওয়া খেয়ে ট্রাকবোঝাই সেগুন কাঠ ফেলে পালালো পাচারকারীরা

ধাওয়া খেয়ে ট্রাকবোঝাই সেগুন কাঠ ফেলে পালালো পাচারকারীরা

সারদেশ ডেস্ক

রাতের আঁধারে পাচার করতে গিয়ে বনকর্মীদের ধাওয়া খেয়ে বিপুল পরিমাণ সেগুন কাঠসহ মিনিট্রাক ফেলে পালিয়েছেন বনখেকোরা। বৃহস্পতিবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) ভোর ৩টার দিকে কক্সবাজারের রামুর উখিয়ার ঘোনা এলাকার সড়ক থেকে কাঠসহ ট্রাকটি জব্দ করা হয় বলে জানিয়েছেন কক্সবাজার উত্তর বনবিভাগের স্পেশ্যাল টিমের ওসি একেএম আতা এলাহী।

তবে এ ঘটনায় কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি বলে উল্লেখ করেন তিনি।

এর আগেও গত ১৪, ১৫ ও ১৬ ফেব্রুয়ারি চকরিয়ার বানিয়াছড়া, নলবিলা, রামুর জোয়ারিয়ানালাসহ বিভিন্ন এলাকায় রাতের অভিযানে ৬টি গাড়িসহ বিপুল পরিমাণ গোলকাঠ, জ্বালানি কাঠ ও পাহাড়ি বালি জব্দ করেছে উত্তর বনবিভাগের বিশেষ টহল দল।

জব্দকৃত সেগুন কাঠ ও অন্য বনজদ্রব্যের বাজার মূল্য প্রায় ১২ লাখ টাকা বলে উল্লেখ করেছেন অভিযানে নেতৃত্ব দেওয়া কক্সবাজার উত্তর বনবিভাগের সদর রেঞ্জের রেঞ্জ কর্মকর্তা ও বিশেষ টহল দলের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ কে এম আতা এলাহী।

তিনি জানান, বুধবার দিনগত রাত ১২টার দিকে খবর আসে রামুর উখিয়ার ঘোনা থেকে বিপুল পরিমাণ অবৈধ সেগুন কাঠ পাচারের প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে। সংবাদ পেয়েই উত্তর বনবিভাগের জোয়ারিয়ানালা, মেহেরঘোনা রেঞ্জে কর্মরতদের সহযোগিতায় অভিযান চালানো হয়। তথ্য মতো সড়কে ওৎপেতে থাকে বনকর্মীরা। হঠাৎ কাঠ লোড করা একটি ট্রাক রাস্তায় এলে থামতে সংকেত দেয়া হয়। তখন ট্রাকটি নিয়ে পালিয়ে উখিয়ার ঘোনা এলাকায় চলে যায়। ধাওয়া খেয়ে রাস্তার ধারে ট্রাক ও কাঠ ফেলে পালিয়ে যায় চালকসহ পাচারকারীরা। পরে কাঠসহ ট্রাকটি মেহোরঘোনা রেঞ্জে জমা রাখা হয়েছে।

এতে আনুমানিক ৩০০ ঘনফুট সেগুনকাঠ হতে পারে এবং এর বাজার মূল্য প্রায় ৯ লাখ টাকা হতে পারে বলে কাঠ ব্যবসায়ীদের ধারণা।

তিনি আরো জানান, গত কয়েক রাত নিয়মিত অভিযানে জেলার বিভিন্ন স্থানে পৃথক পৃথক অভিযান চালানো হয়। অভিযানে বিপুল পরিমাণ বনের কাঠ ও বালু ভর্তিসহ ৬টি গাড়ি জব্দ করা হয়েছে। এ ঘটনায় বন অপরাধে বিধিমোতাবেক পৃথক বন মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

কক্সবাজার উত্তর বনবিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা আনোয়ার হোসেন সরকার বলেন, শীত একটু কমার সঙ্গে সঙ্গে রাতের বেলা বেপরোয়া হয়ে কাঠ পাচারে নেমেছে। বন বিভাগের স্পেশাল টিমও রাতভর মাঠ চষে বেড়িয়ে জালে ফেলছে বনখেকোদের। বৃহস্পতিবার ভোরেও বিপুল পরিমাণ মূল্যবান সেগুন কাঠ জব্দ করা হয়েছে। বন ও পাহাড় রক্ষায় এ অভিযান অব্যহত থাকবে বলে উল্লেখ করেন তিনি।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.