নাফ টিভিতে প্রচারিত সংবাদের তীব্র প্রতিবাদ

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

 

“প্রায় অর্ধ কোটি টাকার দুই বস্তা ইয়াবা লুট, টেকনাফ সমুদ্র সৈকতে” এই শিরোনামে “Naf tv” নামক একটি ফেসবুক পেইজ থেকে ৫ মিনিট ৫২ সেকেন্ডের একটি নাটক সম্প্রচার করা হয়। যাহা ২৪ এপ্রিল রাতে আমার দৃষ্টিগোচর হয়। সম্প্রচারিত নাটকে আমাকে ভিলেন হিসেবে উপস্থাপন করার ব্যর্থ চেষ্টা করা হয়েছে। 

নাটকে উৎসাহী ৩ জন দর্শককে পার্শ্ব চরিত্রে অভিনয় করতে দেখা গেছে। যেখানে আমাকে ভিলেন হিসেবে প্রতিষ্ঠা করার সবরকমের চেষ্টা করা হয়েছে। নাটকের কোথায় ও তারা আমার নাম অথবা আমার সম্পৃক্ততার কথা উল্লেখ করে নাই। যদিও নাটকের প্রডিউসার তাদের কাছ থেকে আমার নাম উল্লেখ করার বারবার চেষ্টা করেছে । ডায়লগ ডেলিভারি করার সময় পিছন থেকে নাটকের চা পানি ওয়ালাদেরকে দিয়েও স্ক্রীপ্টের বাইরের ডায়লগ ডেলিভারি দেওয়ার চেষ্টা করা হয়েছে।

 

নাটকে পার্শ্ব অভিনেতারা শুনেছি, জেনেছি ছাড়া সুনির্দিষ্ট কোন অপরাধ বা অভিযোগ সম্পর্কে বলতে পারেনি। জেলেদের সাগরে মাছ আহরণ করতে না পাড়ার ক্ষোভকে নাটকের প্রডিউসার আমার বিরুদ্ধে ব্যবহার করার চেষ্টা করেছে। যদিও সেখানে তারা সম্পুর্ন ব্যর্থ হয়েছে।

 

নাটকে বলতে দেখা গেছে দুই বস্তা ইয়াবা লুটের কথা নাকি বিজিবি এবং জেলারা স্বীকার করেছে। কিন্থু এর স্বপক্ষে জোড়ালো কোন প্রমান নাটকে দেখাতে পারেনি। লুট হওয়া ইয়াবা খালাসের দায়িত্ব আমার বলে নাটকে যা বলা হয়েছে এটি ভিত্তিহীন এবং কাল্পনিক কাহিনী ছাড়া আর কিছুই নয়।

 

আমার কাজ থেকে বক্তব্য নিতে এলে আমি নাকি ক্ষিপ্ত হয়ে সংবাদকর্মীদের দিকে তেড়ে আসি এবং নিরীহ জেলেদের মারধর করি। যাহা ডাহা মিথ্যা। জেলেরা আমার পরিবারের মত। আমরা একসাথে একিই এলাকায় বসবাস করি। সুখ-দুঃখ ভাগাভাগি করি। সুতরাং জেলেদের মারধর করার প্রশ্নয় উঠেনা।

 

জেলেদের অভিযোগের তীড় মুন্ডার ডেইল ঘাটের সভাপতি লুলা মাজির দিকে। অথচ কথিত নাফ টিভি ঘটনাটি ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার অপচেষ্টা করেছে।

 

কথিত নাফ টিভির মালিক আমার নির্বাচনী প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী হয়। নির্বাচনের আগে আমাকে জনবিচ্ছিন্ন করতে এবং প্রশাসনের নিকট প্রশ্নবিদ্ধ করতে সে এটিকে হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করছে। যাহা কোন প্রফেশনাল সংবাদ মাধ্যমের হতে পারেনা। ফেইসবুক ভিত্তিক বিতর্কিত নাফ টিভি টেকনাফ থানার বহিষ্কৃত ওসি প্রদীপের অর্থায়নে পরিচালিত হওয়ার জনশ্রুতি থাকলেও অবশেষে তার সত্যতা মিলেছে র‍্যাবের তদন্তে। র‍্যাপিড একশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব) এর সাবেক মিডিয়া কর্মকর্তা আশিক বিল্লাহ এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। সুতরাং, বিতর্কিত এই নাফ টিভিতে প্রচারিত কোন সংবাদে আমি মোটেও বিচলিত নয়।

আমি প্রচারিত নাটকের তীব্র প্রতিবাদ এবং নিন্দা জানাই। সে সাথে আমার নির্বাচনী এলাকার জনগন এবং দেশপ্রেমিক স্থানীয় প্রশাসনকে বিভ্রান্ত না হওয়ার অনুরোধ জানাচ্ছি।

 

প্রতিবাদকারী,

মোয়াজ্জেম হোসেন (ডানু)
ইউপি সদস্য

১ নং ওয়ার্ড, ৪ নং সাবরাং ইউনিয়ন পরিষদ।

আপনার মন্তব্য দিন