পাহাড়ি ঝর্ণা দেখতে গিয়ে সর্বস্ব হারালেন ৬ শিক্ষার্থী

নিজস্ব প্রতিবেদক

কক্সবাজারের টেকনাফে রোহিঙ্গা ক্যাম্প সংলগ্ন পাহাড়ি এলাকায় ঝর্ণা দেখতে গিয়ে দুর্বৃত্ত দলের কবলে পড়েছেন স্থানীয় ৬ শিক্ষার্থী। এ সময় তাদের কাছ থেকে ছিনিয়ে নেওয়া হয়েছে মোবাইল ফোন ও নগদ টাকা। তবে এসব শিক্ষার্থীর সঙ্গে আরও ৩ জন ঝর্ণা দেখতে গেলে তারা কৌশলে পালিয়ে আসতে সক্ষম হয়।

শুক্রবার (২০ আগস্ট) সকালে টেকনাফ উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের পানখালী ঢালা নামক এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

ছিনতাইয়ের শিকার শিক্ষার্থীরা হলেন- টেকনাফের হ্নীলা ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকার বাসিন্দা আনোয়ার হোসেন (২৪), রাকিবুল ইসলাম (২৫), শাহেদ হোসেন (২৪), রিয়াজ উদ্দিন (২১), হামিদ হোসেন (২২) ও মোহাম্মদ আইয়ুব (২১)। টেকনাফ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. হাফিজুর রহমান গনমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, শুক্রবার সকালে টেকনাফের হ্নীলা ইউনিয়নের পানখালী ঢালা নামক পাহাড়ি এলাকায় ‘স্বপ্নপূরী ঝর্ণা’ দেখতে যায় স্থানীয় ৯ জন শিক্ষার্থী। তারা ঝর্ণার পানিতে গোসলের এক পর্যায়ে একদল দুর্বৃত্ত তাদের ঘিরে ফেলে। এসময় দুর্বৃত্ত দলের কবল থেকে ৩ জন কৌশলে পালিয়ে আসতে সক্ষম হলেও অন্যরা পারেনি। পরে তাদের সঙ্গে থাকা মোবাইল ফোন সেট ও নগদ টাকা ছিনিয়ে নেওয়া হয়। পরে ১ ঘণ্টার পর শিক্ষার্থীরা মুক্ত হন।

হ্নীলা ইউপি চেয়ারম্যান রাশেদ মোহাম্মদ আলী বলেন, সকালে হ্নীলা ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকার ৯ জন শিক্ষার্থী মিলে স্থানীয় পানখালী পাহাড়ি এলাকায় স্বপ্নপূরী নামের ঝর্ণাটি দেখতে গিয়েছিল। এতে ঝর্ণার পানিতে গোসলের এক পর্যায়ে তারা ডাকাত দলের কবলে পড়ে। তাদের মধ্যে ৩ জন কৌশলে পালিয়ে এসে বিষয়টি স্থানীয়দের অবহিত করে।

স্থানীয়দের কাছ থেকে আমি খবরটি পাওয়ার পরপরই টেকনাফ থানা পুলিশকে অবহিত করি। পরে পুলিশের একটি দলকে নিয়ে ঘটনাস্থলে যাওয়ার পথে খবর পাই ডাকাত দল আটকে রাখা শিক্ষার্থীদের মোবাইল ফোন ও নগদ টাকা ছিনিয়ে নিয়ে ছেড়ে দিয়েছে।

স্থানীয় এ ইউপি চেয়ারম্যান বলেন, হ্নীলা ইউনিয়নের পানখালী ঢালা এলাকায় অবস্থিত স্বপ্নপূরী নামের ঝর্ণাটি রোহিঙ্গা ক্যাম্প সংলগ্ন। রোহিঙ্গা ক্যাম্প কেন্দ্রিক সক্রিয় রয়েছে বেশ কয়েকটি অপরাধ দল। এ নিয়ে ধারণা করা হচ্ছে, রোহিঙ্গা দুর্বৃত্ত দল এই ঘটনাটি ঘটিয়ে থাকতে পারে।

অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. হাফিজুর রহমান জানান, ঘটনার ব্যাপারে পুলিশ খোঁজ-খবর নিচ্ছে। জড়িতদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনা হবে।

আপনার মন্তব্য দিন