মহেশখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চালু হয়েছে সিজার ও অপারেশন

মহেশখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চালু হয়েছে সিজার ও অপারেশন

হ্যাপী করিম, মহেশখালী :

কক্সবাজার জেলার মহেশখালী উপজেলার একমাত্র সরকারি হাসপাতাল হলো “মহেশখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে”। মহেশখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে হাসপাতালে এসেছে যুগান্তকারী পরিবর্তন। নানা সংকটে দীর্ঘদিন পর চালু হয়েছে “সিজার ও অপারেশন”।

১৮ মে বুধবার দুপুর ১টায় মহেশখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে হাসপাতালে সিজার ও অপারেশনের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন মহেশখালী-কুতুবদিয়া আসনের সাংসদ আলহাজ্ব আশেক উল্লাহ রফিক। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন মহেশখালী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ ইয়াছিন, মহেশখালী পৌরসভার মেয়র আলহাজ্ব মকছুদ মিয়া, মহেশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আবদুল হাই-পিপিএম, জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি এম আজিজুর রহমান বিএ, মহেশখালী পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের ডিজিএম আল আমিন, মহেশখালী উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ফরিদুল আলম, কুতুবজোম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এডভোকেট শেখ কামাল, মহেশখালী প্রেসক্লাবের সভাপতি আবুল বশর পারভেজ’সহ অন্যান্য চিকিৎসক ও স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

মহেশখালী স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মাহফুজুল হক আপ্রাণ চেষ্টায় অবশেষে চালু করা হয়েছে সিজার ও অপারেশন। পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ মাহফুজুল হক উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যোগদান করার পর থেকেই পাল্টে যেতে থাকে হাসপাতালের সেবা। তিনি যোগদান করার পরেই মহেশখালী উপজেলা বাসীকে প্রতিশ্রুতি দেন সর্বক্ষণ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসা সেবা, সমস্ত চিকিৎসকদের উপস্থিত নিশ্চিত করন ও সম্পূর্ণ দালাল মুক্ত সার্টিফিকেট বানিজ্য বন্ধ, ২৪ ঘন্টা জরুরি সেবা প্রদান, মাতৃত্ব কালীন সেবা প্রদান, সিজার ও অপারেশন করা, মাতৃ স্বাস্থ্য ভাউচার স্কিম আওতায় গরিব অসহায় মায়েদের অর্থিক অনুদান প্রদান করা।
তিনি একটি স্বয়ংসম্পূর্ণ সেবা মূলক হাসপাতাল বিনির্মাণ করার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন ।

বর্তমানে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স শতভাগ দালাল মুক্ত, হচ্ছে না সার্টিফিকেট বানিজ্য। যে কোন সময় হাসপাতালে গেলে পাওয়া যায় জরুরি সেবা।

এই বিষয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা.শিব শেখর ভট্টাচার্য বলেন, আজ প্রথম দিনে নরমাল ডেলিভারী-৯ জন, আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের পর প্রথমে শাপলাপুর বারিয়াপাড়া গ্রামের তৌহিদা আক্তার মেয়ে সন্তান জন্ম হয়, আমাদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আগে তেমন কোন যন্ত্রপাতি ছিল না, সিজার ও অপারেশন করার ব্যবস্থা বন্ধ ছিল। সিজার ও অপারেশন। হাসপাতালে একটি ভবন নির্মাণাধীন থাকায় চিকিৎসা সেবা কিছুটা সমস্যা ও ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে তবে ভবন টি নির্মাণ হয়ে গেলে আমাদের আর কোন সমস্যা থাকবে না। তিনি আরো বলেন, আজ থেকে আবারো সিজার ও অপারেশন শুরু হওয়ায় আমরা মহেশখালী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এর সকল ডাক্তার নার্স কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের পক্ষে মহেশখালী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ মাহফুজুল হক’কে ধন্যবাদ জানাই এবং সবাই কে অভিনন্দন জানাই !

যুগান্তকারী পরিবর্তন মহেশখালী স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মাহফুজুল হক’কে সার্বিক সহযোগীতায় ছিলেন সহকারী সার্জন ডিজি (স্বাস্থ্য) ডাঃ এবিএম খুরশিদ আলম, ডিভিশনাল ডিরেক্টর ডাঃ হাসান শাহরিয়ার কবির, সিভিল সার্জন ডাঃ মাহবুবুল রহমান আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ এম এম মঈনুদ্দিন’আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ আজমল হুদা, আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ শাওন’সহ অন্যান্য চিকিৎসক বৃন্দ

এই বিষয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ মাহফুজুল হক বলেন, নানা ধরনের প্রতিবন্ধকতা থাকা স্বত্বেও সিজার ও অপারেশন ব্যবস্থা করা হয়েছে। এই সকল কাজে সার্বিকভাবে সহযোগিতা করার জন্য কক্সবাজার-২ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব আশেক উল্লাহ রফিক’কে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

তিনি আরো বলেন, আমরা প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স দালাল মুক্ত করার লক্ষ্যে নানা ধরনের পদক্ষেপ গ্রহণ করেছি। হাসপাতালে একটি বিল্ডিং নির্মাণাধীন থাকায় আমাদের সেবা প্রদান কার্যক্রমে কিছুট বেগ পেতে হচ্ছে। কিন্তু এরপরও আমরা যথা সম্ভব সেবা প্রদান করে যাচ্ছি।

Related Articles