শামলাপুরে রাতের আঁধারে সাবেক মেম্বারের বসতবাড়িতে হামলা ও পাকা দেয়াল ভাংচুর

স্টাফ করেসপনডেন্ট।।

কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলার বাহারছড়া ইউনিয়নের শামলাপুর পুরান পাড়া এলাকায় রোহিঙ্গাদের সমন্বয়ে একদল দুবৃত্ত রাতের আধারে সাবেক মেম্বার মৃত নুরুল হকের ছেলে অছিউর রহমানের বসতবাড়ীতে হামলা ঘটনা ঘটেছে। বৃহস্পতিবার ( ৭ ডিসেম্বর) রাত আনুমানিক ১ টার দিকে হায়দর বাহিনীর হায়দর আলীর নেতৃত্বে এঘটনা ঘটেছে।
এসময় দুবৃত্তরা বসতবাড়ীর ইটের দেয়াল ভাংচুর করে ব্যাপক ক্ষতি সাধন করেছে বলে গুরুতর অভিযোগ ।
জানা গেছে, বৃহস্পতিবার ( ৭ ডিসেম্বর) রাত আনুমানিক ১ টার দিকে হায়দর বাহিনীর হায়দর আলী, হাবিবুর রহমান প্রকাশ কালাবদা (পিতা মৃত নুরুল হক), নুর উল্লাহ প্রকাশ লালু, নুরুল আমিন প্রকাশ বাট্টু (পিতা হাবিবুর রহমান) সহ অজ্ঞাত রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীদের নিয়ে বেআইনিভাবে বাড়ীতে হামলা ও পাকা দেয়াল ভাংচুর করে।

সাবেক মেম্বার অছিউর রহমানের একক নামীয় বিএস ২০১৮ নং খতিয়ানের ১৮৩১, ১৮৩২ দাগের ৬০ শতক জমির উপর লোভ পড়ে ভুমিদস্যুদের। শামলাপুরের দিনদিন জমির দাম বৃদ্ধি পাওয়ার কারণে লোভে বশিভুত হয়ে ভূমিদস্যু হায়দর বাহিনী এমন জঘন্য অপরাধ সংগঠিত করেছে বলে জানা গেছে।

সাবেক মেম্বার অছিউর রহমানের বসতবাড়ী হামলা করে সন্ত্রাসী হায়দর গংরা তিনটা লম্বা ইটের দেয়াল ভাংচুর করায় আনুমানিক তিন লক্ষ টাকা ক্ষতি হয়েছে বলে জানিয়েছেন অছিউর রহমানের ছেলে মোঃ ইউসুফ।
জানা গেছে,সাবেক মেম্বার অছিউর রহমান আশ্রিতা হিসেবে নুরুল আমিন বাট্টুকে গত কয়েক বছর আগে বসবাসের সুযোগ দেয়। রাতের আঁধারে সাবেক মেম্বারের বসতবাড়ির হামলা এবং ভাংচুর করে হায়দর গংরা ক্ষান্ত হয়নি, হাবিবুর রহমান প্রকাশ কালা বদার ছেলে নুরুল আমিন প্রকাশ বাট্টুর বাড়ীর একটি বারান্দা টেনে নামিয়ে মিথ্যা মামলা করবে বলেও হায়দার গংরা বিভিন্ন হুমকি দিচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন সাবেক মেম্বার অছিউর রহমান। হামলা এবং ভাংচুরের বিষয়ে মামলা প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলে জানিয়েছেন তিনি।
শামলাপুর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ ইন্সপেক্টর নুর মোহাম্মদ জানান, হামলা ও ভাংচুরের বিষয়টি নিয়ে কোর্টে মামলা করেছে। আদালতের নির্দেশ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আপনার মন্তব্য দিন