সোমবার, ৪ঠা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
Homeচকরিয়াসৈয়দ মোহাম্মদ ইবরাহিমের হাতঘড়ি প্রতীকের বিজয়

সৈয়দ মোহাম্মদ ইবরাহিমের হাতঘড়ি প্রতীকের বিজয়

বিশেষ প্রতিনিধি

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কক্সবাজারের সবচেয়ে আলোচিত আসন ছিল চকরিয়া-পেকুয়া আসনটি। এ আসনে হেভিওয়েট প্রার্থী হিসেবে বিবেচ্য ছিল বর্তমান সংসদ সদস্য ও স্বতন্ত্র প্রার্থী ট্রাকগাড়ি প্রতীক নিয়ে জাফর আলম। তার সাথে ভোটযুদ্ধে মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতা হয় কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব:) সৈয়দ মোহাম্মদ ইবরাহিমের, হাতঘড়ি প্রতীক নিয়ে।

এছাড়াও নির্বাচনে চকরিয়া-পেকুয়া আসনে আরো ৫ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন। তবে এই আসনটিতে হাতঘড়ি প্রতীকের পক্ষে আওয়ামীলীগের একটি অংশের বিশাল সমর্থন ও ব্যাপক প্রচার-প্রচারণা, উপজেলা চেয়ারম্যান এবং পৌর মেয়রের ক্যারিশমায় সৈয়দ মোহাম্মদ ইবরাহিমের হাতঘড়ি প্রতীকের নিরঙ্কুশ বিজয় হয়ে বলে জানান ভোটারেরা।

বিকেলে ভোট গ্রহণ শেষে দুই উপজেলার ১৫৮টি কেন্দ্রের মধ্যে ৩টি কেন্দ্রের ফলাফল বন্ধ ঘোষনা করা হয়েছে। এই তিনটি ভোট কেন্দ্র ব্যতিত অবশিষ্ট ১৫৫টি ভোট কেন্দ্রের বেসরকারী ভাবে ফলাফল ঘোষনা করা হয়েছে। এতে হাতঘড়ি প্রতীক নিয়ে কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব:) সৈয়দ মোহাম্মদ ইবরাহিম ৮১ হাজার ৯৫৫ ভোট পেয়ে বেসরকারী ভাবে বিজয়ী হয়েছেন।

এ আসনে তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী জাফর আলম ট্রাকগাড়ি প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৫২ হাজার ৮৯৬ ভোট।

চকরিয়া-পেকুয়া আসনে মোট ভোটার ছিল ৪ লাখ ৮৪ হাজার ৩৭৩ জন। চকরিয়া উপজেলায় ১৮টি ইউনিয়ন ও পৌরসভায় ১১৪টি ভোট কেন্দ্রের বিপরীতে ১ লাখ ৮৭ হাজার ২৪৭ জন পুরুষ ও এক লাখ ৬৪ হাজার ২৪২ জন নারী মিলিয়ে ভোটার রয়েছে ৩ লাখ ৫১ হাজার ৫০৯ জন। পেকুয়া উপজেলার ৭টি ইউনিয়নে ৪৪ ভোট কেন্দ্রের বিপরীতে ৭২ হাজার ৫৫ জন পুরুষ ও ৬০ হাজার ৮০৯ নারীসহ ভোটার ছিল ১ লাখ ৩২ হাজার ৮৬৪ জন।

কক্সবাজার-১ চকরিয়া-পেকুয়া আসনে অন্যান্য প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থীদের মধ্যে ওয়ার্কাস পার্টির হাজী আবু মোহাম্মদ বশিরুল আলম হাতুড়ি প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৫৩৭ ভোট, জাতীয় পার্টি হোসনে আরা লাঙ্গল প্রতীক নিয়ে ৭৭৩ ভোট, স্বতন্ত্র প্রার্থী তানভীর আহমদ সিদ্দিকী তুহিন ঈগল প্রতীক নিয়ে ২৪৪ ভোট, বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের মুহাম্মদ বেলাল উদ্দিন মোমবাতি প্রতীক নিয়ে ৬৯১ ভোট ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মিরাক্কেল তারকা কমর উদ্দিন আরমান কলার ছড়ি প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ১৮০ ভোট।

এদিকে, চকরিয়া-পেকুয়া আসনে ১৫৮টি কেন্দ্রে সকাল থে‌কে ভোটারেরা লাই‌নে দা‌ঁড়ি‌য়ে নিজ নিজ কেন্দ্রে ভোট প্রদান করতে দেখা গেছে। তবে এ বারের সংসদ নির্বাচনে পুরু‌ষের তুলনায় নারী ভোটারের উপ‌স্থি‌তি বে‌শি দেখা মেলে। তবে অন্যান্য নির্বাচনের তুলনায় এই নির্বাচনে বিভিন্ন ভোট কেন্দ্র ঘুরে দেখা যায় ভোটারের উপস্থিতি খুবই নগন্য ও ভোটার শূন্য লক্ষ্য করা গেছে।

সকাল থেকে ভোটগ্রহণ শেষ হওয়া পর্যন্ত বড় ধরণের কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। তবে সন্ধ্যার দিকে উপজেলার বিএমচর ইউনিয়নের বহদ্দার কাটা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রের সামনে রাস্তার ওপরে ভোট কেন্দ্রের তুচ্ছ বিষয়ের জেরে হাতঘড়ি প্রতীকের সমর্থক ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম খোকনকে ট্রাকগাড়ি প্রতীকের সমর্থকেরা অতর্কিত ভাবে দেশীয় তৈরি ধারালো অস্ত্রে নিয়ে হামলা চালিয়ে গুরুতর আহত হয়েছে বলে খবর পাওযা গেছে। তার অবস্থা খুবই আশঙ্কাজনক। বর্তমানে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এ ঘটনায় এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।

সহকারী রিটানিং কর্মকর্তা চকরিয়া ও পেকুয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) স্ব স্ব উপজেলায় প্রাপ্ত ভোটের ফলাফল ঘোষনা করেন।

কক্সবাজার-১ চকরিয়া-পেকুয়া আসনে ১৫৫ টি কেন্দ্রে প্রাপ্ত ভোটে হাতঘড়ি প্রতীক নিয়ে কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব:) সৈয়দ মোহাম্মদ ইবরাহিম ৮১ হাজার ৯৫৫ ভোট পেয়ে বেসরকারী ভাবে বিজয়ী হয়েছেন।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

Recent Comments