স্ত্রী-সন্তানসহ দুদক কার্যালয়ে এমপি জাফর

স্ত্রী-সন্তানসহ দুদক কার্যালয়ে এমপি জাফর

|| রাইজিং বিডি ||

স্থাবর-অস্থাবর সম্পদের হিসাব দিতে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) এর কক্সবাজার সমন্বিত জেলা কার্যালয়ে স্ত্রী-সন্তানসহ হাজির হয়েছেন কক্সবাজার-১ (চকরিয়া-পেকুয়া) আসনের সংসদ সদস্য ও চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জাফর আলম। অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে তাদের দুদকে তলব করা হয়।

মঙ্গলবার (২০ সেপ্টেম্বর) দুপুর ১২টায় এমপি জাফর আলম, স্ত্রী শাহেদা বেগম, ছেলে তুহিন আলম ও মেয়ে তানিয়া আফরিন দুদক কার্যালয়ে প্রবেশ করেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন দুদক কক্সবাজার সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মো. রিয়াজ উদ্দিন।

তিনি জানান, গেল ২৪ আগস্ট তাদের আলাদা চিঠি পাঠানো হয়। চিঠিতে জাফর আলম, স্ত্রী শাহেদা বেগম, মেয়ে তানিয়া আফরিন ও ছেলে তানভীর আহমদ সিদ্দিকী তুহিনকে ৪ সেপ্টেম্বর দুদকের কক্সবাজার কার্যালয়ে হাজির হয়ে সম্পদের হিসাব দিতে বলা হয়। কিন্তু আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যক্রম থাকায় সেদিন তারা উপস্থিত থাকতে পারেননি। তবে ৩ সেপ্টেম্বর দুদকে চিঠি দিয়ে সংসদ সদস্য জাফর বিষয়টি জানান। সেই আবেদনেই তারা ২০ সেপ্টেম্বর দুদক কার্যালয়ে আসবেন বলে জানিয়েছিলেন।

দুদক সূত্র জানায়, সংসদ সদস্য জাফর আলমের ক্ষমতা ও প্রভাবকে কাজে লাগিয়ে তার স্ত্রী শাহেদা বেগম সরকারি জমি, চিংড়ির ঘের, জলমহাল দখল, মাদক কারবার, চাঁদাবাজি এবং অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে বিক্রির মাধ্যমে কোটি কোটি টাকা সম্পদের মালিক হয়েছেন। এ অভিযোগ তদন্তের জন্য সংসদ সদস্য জাফর আলম ও তার স্ত্রী-সন্তানদের দুদক কার্যালয়ে ডাকা হয়েছে।

তবে শাহেদা বেগমের দাবি, তার বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগগুলোর কোনো ভিত্তি নেই। রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ তার বিরুদ্ধে দুদকে মিথ্যা অভিযোগ দিয়েছে।

এদিকে স্ত্রীর সম্পদের অনুসন্ধানকে চিহ্নিত মহলের ষড়যন্ত্র বলে দাবি করেন সংসদ সদস্য জাফর আলম।

তিনি বলেন, ৪ সেপ্টেম্বর চকরিয়া পৌরসভার আওয়ামী লীগের সম্মেলন ও কাউন্সিল থাকার কারণে আমি ২০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত দুদকে সময় নিয়েছিলাম। অতপর আজ দুদক কার্যালয়ে উপস্থিত হয়েছি।

Related Articles