মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৫:৫৫ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
চকরিয়া খুটাখালীতে পাওনা টাকার জন্য দুই শিশুকে হত্যার চেষ্টা উখিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের প্রধানমন্ত্রীর জম্মদিন উদযাপন কালারমারছড়া ইউপি চেয়ারম্যান তারেকের সাড়ে ৬ লাখ টাকা জব্দ করলো দুদক পিএমখালীতে গৃহবধু ও তার ছেলেকে মধ্যযুগীয় বর্বরতায় নির্যাতনের অভিযোগ বদর মোকাম মসজিদ নিয়ে ‘মিথ্যা সংবাদকারী’দের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা প্রয়োজনে সিটিজি সংবাদ ডটকমের সেরা ব্যুরো প্রধান কক্সবাজারের শাহজাহান চৌধুরী শাহীন মৌলিক সংবাদ প্রকাশে সিটিজি সংবাদ অনন্য: প্রতিনিধি সভায় বক্তারা সৈকত দ্বিখণ্ডিত করণ বন্ধে জেলা প্রশাসক ও পরিবেশ অধিদপ্তরকে চিঠি দিয়েছে ইয়েস কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতকে দ্বিখণ্ডিত করার অভিযোগ কক্সবাজার বদর মোকাম জামে মসজিদের বিরুদ্ধে অপপ্রচারের প্রতিবাদ মুসল্লীদের মানববন্দন
সংবাদ শিরোনাম
চকরিয়া খুটাখালীতে পাওনা টাকার জন্য দুই শিশুকে হত্যার চেষ্টা উখিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের প্রধানমন্ত্রীর জম্মদিন উদযাপন কালারমারছড়া ইউপি চেয়ারম্যান তারেকের সাড়ে ৬ লাখ টাকা জব্দ করলো দুদক পিএমখালীতে গৃহবধু ও তার ছেলেকে মধ্যযুগীয় বর্বরতায় নির্যাতনের অভিযোগ বদর মোকাম মসজিদ নিয়ে ‘মিথ্যা সংবাদকারী’দের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা প্রয়োজনে সিটিজি সংবাদ ডটকমের সেরা ব্যুরো প্রধান কক্সবাজারের শাহজাহান চৌধুরী শাহীন মৌলিক সংবাদ প্রকাশে সিটিজি সংবাদ অনন্য: প্রতিনিধি সভায় বক্তারা সৈকত দ্বিখণ্ডিত করণ বন্ধে জেলা প্রশাসক ও পরিবেশ অধিদপ্তরকে চিঠি দিয়েছে ইয়েস কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতকে দ্বিখণ্ডিত করার অভিযোগ কক্সবাজার বদর মোকাম জামে মসজিদের বিরুদ্ধে অপপ্রচারের প্রতিবাদ মুসল্লীদের মানববন্দন

২০ বছর পর সচল হচ্ছে পুইছড়ি ছালেমা বাজার

নিউজ কক্সবাজার ডটকম
  • আপডেট টাইম বুধবার, ২২ জুলাই, ২০২০

তাজুল ইসলাম পলাশ,চট্টগ্রাম :

দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর চাঙ্গা হতে যাচ্ছে বাশঁখালী’র ঐতিহ্যবাহী ছালেমা চৌধুরানী বাজার। দক্ষিণ চট্টগ্রামের একমাত্র বাজার ছালেমা বাজার। যা সপ্তাহে তিন দিন বাজার বসতো। কিন্তু কালের বিবর্তনে সেটা হারিয়ে যায়। সম্প্রতি বাজারটি নতুন করে চালু করার জন্য এলাকার সচেতন মহলসহ সকলে আগ্রহী হয়ে উঠে।

এরই পরিপ্রেক্ষিতে পুইছড়ি ইউনিয়ন পরিষদ থেকে ডাক হয়। প্রাথমিকভাবে আসন্ন কোরবানের বাজারটি বসার জন্য ইজারা দেওয়া হয়। ইজারা পায় হেফাজ উদ্দিন। তার সহযোগী হিসেবে আছেন ব্যবসায়ী কুতুব উদ্দিন প্রকাশ মহিউদ্দিন এবং মাহবুবুর রহমান মাবু।

এদিকে দূর দুরান্ত থেকে পশু বাজারে আনার জন্য মাইকিং করা হচ্ছে। বিভিন্ন এলাকায় লোক পাঠিয়ে বিভিন্ন ডেইরি’র মালিককে আমন্ত্রণ জানানো হয়। ইতিমধ্যে বাজারের আশপাশ এলাকা পরিস্কার পরিচ্ছন্ন করা হয়েছে। ফলের আড়ৎসহ বিভিন্ন রকমের পণ্য নিয়ে দোকানিরা আসতে শুরু করেছে।

ইজারাদার হেফাজ উদ্দিন জানায়, এলাকার চাহিদা অনুযায়ী ছালেমা চৌধুরানী বাজারে কোরবানি পশুর হাটের জন্য ইজারা পেয়েছি। আশেপাশে তেমন কোনো বাজার না থাকায় আমরা খুব আশাবাদী। আগামী বুধবার এবং শুক্রবার পশু উঠানো হবে।

তিনি বলেন, আমাদের এলাকায় প্রায় অধিকাংশ মানুষ কোরবানি করেন। সেই অনুযায়ী এলাকার বড় গরুর চাহিদা আছে। পাশাপাশি ছোট ও মাঝারি সাইজের গরুর চাহিদা আরও বেশি। আমরা বিভিন্ন এলাকায় গরু বিক্রেতা ও ডেইরি ফার্ম মালীকদের আমন্ত্রণ জানিয়েছি। আমরা আশা করি আমাদের বাজার থেকে ক্রেতারা পছন্দমতো পশু ক্রয় করতে পারবেন।

বাজার কমিটির সূত্রে জানা যায়, মহিষের দাম রাখা হবে ৩০০ টাকা, প্রতি গরু ২০০ টাকা এবং ছাগল মাত্র ৫০ টাকা হাসিল নির্ধারন করা হয়েছে।

এলাকার মাহবুবুর রহমান কোম্পানি ও কুতুব উদ্দিন জানায়, এক সময় বাজারটির সুনাম ছিলো। দূর দুরান্ত থেকে ব্যবসায়ীরা মাছ তরিতরকারি নিয়ে আসতো। প্রতি সপ্তাহে তিন দিন বাজার বসতো। সোমবার ও শুক্রবার। দক্ষিণ বাশঁখালী’র সবচেয়ে জনপ্রিয় বাজার ছিলো ছালেমা চৌধুরানী বাজার।

বাজারের ব্যবসায়ী সমীর উদ্দিন ও আজিম বলেন, বাপদাদার আমল থেকে আমরা ব্যবসায়ী ঘরের সন্তান। আমার বাবারাও এই বাজারে ব্যবসা করে গেছেন। সবাই একে একে চলে গেলেও আমরা এখনও আছি। আমরা আশাবাদী সকলে সম্মিলিতভাবে বাজারটি নতুন করে বসার ব্যবস্থা করে সকলের জন্য ভালো হবে।

৬ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য তফাজ্জল হোসেন চৌধুরী পুতু মিয়া বলেন, বাজারটি পূনরায় চালু করতে যা যা করা দরকার আমি করবো।

জানা যায়, চট্টগ্রামের বাশঁখালী উপজেলার পুইছড়ি ইউনিয়নের পূর্ব পুইছড়ি এলাকায় এই বাজারটির অবস্থান। প্রেম বাজার থেকে ফরেস্ট রোড হয়ে মাত্র দুই মিনিটে সময় লাগে বাজারটিতে পৌঁছতে। স্বাধীনতার পর থেকে এই বাজারটি নিয়মিত বসতো। খুব জমজমাট ছিলো। দূর দুরান্ত থেকে সওদা করতে ব্যবসায়ীরা এই বাজারে ভিড় করতো।

মাছ, মাংস, তরিতরকারি, বাশঁ, বেতের তৈরিকৃত নানা রকমের জিনিসপাতিসহ মানুষের চাহিদামতো সবকিছু পাওয়া যেতো। তখনকার বাশঁখালী নামীদামী বাজারের তালিকায় ছালেমা বাজার অন্যতম। কালের বির্বতনে হারিয়ে গেছে অনেক নামীদামী বাজার। যেমন সরলিয়া বাজার, বহদ্দারহাট এক প্রকার বন্ধ হয়ে গেছে। আধুনিকতার ছোঁয়া লেগে পাল্টে গেছে অনেককিছু। কিন্তু যথারীতি বাজারগুলোর নাম এখনো রয়ে গেছে।

এলাকার মানুষের সাথে কথা বলে জানা যায়, দীর্ঘ ২০ বছর আগে বাজারটি বন্ধ হয়ে যায়। বাজারটি সপ্তাহে তিনদিন বসতো।

তবে বাজারটি বন্ধ হওয়ার পেঁছনে ভিন্ন মতামতও পাওয়া গেছে। কেউ কেউ বলছেন, বাজারের আশপাশের কিছু লোক ব্যবসায়ীদের সাথে দূর ব্যবহার করতো। অনেকে নিয়মিত ব্যবসায়ীদের বকেয়া পরিশোধ করতো না।

এরপরেও বাজারটি সচল ছিলো। কিন্তু ২০০১ সালের দিকে রমজানের সময় মসজিদ থেকে এশার নামাজ আদায় করে বাড়ি ফেরার সময় এক নিরহ মানুষকে গুলি করে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। কংকর ভেঙ্গে ফুট হিসেবে যা আয় হতো তা দিয়ে চলতো তার সংসার। এমন একজন নিরীহ মানুষকে খুনের ঘটনায় পুরো এলাকায় তীব্র নিন্দার ঝড় উঠে। কথায় আছে পাপ বাপকেও ছাড়েনা। আর সেই পাপের খেসারত হয়তো দিতে হয়েছে এই বাজারকে। শুধু তাই নয়, জনসমাগম ছালেমা বাজারে এক পাগলি থাকতো। তাকেও গরম পানি, চুল ছেঁটে দেওয়া, উলঙ্গ থেকে শুরু করে নির্মম অত্যাচার করা হয়। পরে পাগলিটি অসুস্থ হয়ে মারা যায়।
সবকিছু মিলে এই বাজারের উপর এতো অন্যায় অত্যাচার বেড়ে গিয়েছিলো যার ফলাফল জনশূন্য এখন এই বাজারটি।

এই বাজারে শতবর্শী একটি বটগাছ ছিলো। কালের সাক্ষী এই গাছটি পথিকদের ছায়া দিতো। পুরো বাজারটিকে রোদ থেকে ছায়া দিয়ে শীতল করে রাখতো। সবকিছুর সাথে মরণ হয় ওই শতবর্শীর। এরপর থেকে ইতিহাস হয়ে গেলো ছালেমা চৌধুরানী বাজার।

 

আপনার মন্তব্য দিন

নিউজটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো সংবাদ>>
© All rights reserved © 2017-2020 নিউজ কক্সবাজার ডটকম
Theme Customized By Shah Mohammad Robel