মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৭:২১ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
চকরিয়া খুটাখালীতে পাওনা টাকার জন্য দুই শিশুকে হত্যার চেষ্টা উখিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের প্রধানমন্ত্রীর জম্মদিন উদযাপন কালারমারছড়া ইউপি চেয়ারম্যান তারেকের সাড়ে ৬ লাখ টাকা জব্দ করলো দুদক পিএমখালীতে গৃহবধু ও তার ছেলেকে মধ্যযুগীয় বর্বরতায় নির্যাতনের অভিযোগ বদর মোকাম মসজিদ নিয়ে ‘মিথ্যা সংবাদকারী’দের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা প্রয়োজনে সিটিজি সংবাদ ডটকমের সেরা ব্যুরো প্রধান কক্সবাজারের শাহজাহান চৌধুরী শাহীন মৌলিক সংবাদ প্রকাশে সিটিজি সংবাদ অনন্য: প্রতিনিধি সভায় বক্তারা সৈকত দ্বিখণ্ডিত করণ বন্ধে জেলা প্রশাসক ও পরিবেশ অধিদপ্তরকে চিঠি দিয়েছে ইয়েস কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতকে দ্বিখণ্ডিত করার অভিযোগ কক্সবাজার বদর মোকাম জামে মসজিদের বিরুদ্ধে অপপ্রচারের প্রতিবাদ মুসল্লীদের মানববন্দন
সংবাদ শিরোনাম
চকরিয়া খুটাখালীতে পাওনা টাকার জন্য দুই শিশুকে হত্যার চেষ্টা উখিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের প্রধানমন্ত্রীর জম্মদিন উদযাপন কালারমারছড়া ইউপি চেয়ারম্যান তারেকের সাড়ে ৬ লাখ টাকা জব্দ করলো দুদক পিএমখালীতে গৃহবধু ও তার ছেলেকে মধ্যযুগীয় বর্বরতায় নির্যাতনের অভিযোগ বদর মোকাম মসজিদ নিয়ে ‘মিথ্যা সংবাদকারী’দের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা প্রয়োজনে সিটিজি সংবাদ ডটকমের সেরা ব্যুরো প্রধান কক্সবাজারের শাহজাহান চৌধুরী শাহীন মৌলিক সংবাদ প্রকাশে সিটিজি সংবাদ অনন্য: প্রতিনিধি সভায় বক্তারা সৈকত দ্বিখণ্ডিত করণ বন্ধে জেলা প্রশাসক ও পরিবেশ অধিদপ্তরকে চিঠি দিয়েছে ইয়েস কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতকে দ্বিখণ্ডিত করার অভিযোগ কক্সবাজার বদর মোকাম জামে মসজিদের বিরুদ্ধে অপপ্রচারের প্রতিবাদ মুসল্লীদের মানববন্দন

ছাত্রজীবনে বঙ্গবন্ধুর সাহসীকতা

নিউজ কক্সবাজার ডটকম
  • আপডেট টাইম শনিবার, ৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০

সামছুল আলম সাদ্দাম।।

১৯৩৯ সালের কথা। গোপালগঞ্জ মাথুরানাথ ইনিস্টিউট মিশন স্কুলের ছাত্র-শিক্ষক, স্কুল পরিচালনা পর্ষদ সবাই ব্যস্ত। স্কুলের ক্লাশরুম, বারান্দা, পায়খানা- প্রসাবখানা সব ঝকঝকে পরিস্কার। গাছ থেকে একটি ঝরা পাতা উড়ে এসে বারান্দায় পড়লে হেড মাস্টার সাহেব কাউকে কিছু না বলে নিজেই ঝট করে পাতাটা তুলে ফেলছেন।দু’সপ্তাহ আগেই ছাত্র-ছাত্রীদের বলে দেওয়া হয়েছে সেদিন যেন সকলে পরিস্কার-পরিছন্ন মার্জিত পোষাক পড়ে স্কুলে হাজির হয়। কারণ ঐদিন অবিভক্ত বাংলার মুখ্যমন্ত্রী শেরেবাংলা একে ফজলুল হক স্কুল পরিদর্শনে আসবেন সাথে থাকবেন বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী পরবর্তীতে প্রধানমন্ত্রী । ভালোয় ভালোয় স্কুল পরিদর্শন শেষে মন্ত্রী মহোদ্বয় ডাক বাংলার দিকে হেঁটে যাচ্ছিলেন এমন সময় একদল ছাত্র এসে হঠাৎ তাঁদের পথ আগলে দাঁড়ালো।ছাত্রদের এমন কান্ড দেখে হেড মাস্টার সাহেব তো রিতিমত ভরকে গেলেন।

তিনি চিৎকার দিয়ে বললেন, ‘এই তোমরা কী করছ রাস্তা ছেড়ে দাও।।’ ছাত্ররা হেড মাস্টারের কথায় কর্ণপাত না করে হ্যাংলা পাতলা লম্বা ছিপছিপে মাথায় ঘন কালো চুল ব্যাক ব্রাশ করা একটি ছেলে গিয়ে দাঁড়ালো একেবারে মুখ্যমন্ত্রীর সম্মুখে ।

মন্ত্রী মহোদয় জিজ্ঞেস করলেন, ‘ কি চাও ? বুকে সাহস নিয়ে নির্ভয়ে সে উত্তর দিল, ‘ আমরা গোপালগঞ্জ মাথুরানাথ ইনিস্টিউট মিশনারি হাই স্কুলেরই ছাত্র । স্কুলের ছাদে ফাটল ধরেছে সামান্য বৃষ্টি হলেই সেখান থেকে বৃষ্টির পানি চুয়িয়ে পড়ে আমাদের বই-খাতা ভিজে যায়।ক্লাশ করতে অসুবিধা হয়।স্কুল কর্তৃপক্ষের কাছে বারবার এ ব্যাপারে বলা হলেও কোন ফল হয়নি। ছাদ সংস্কারের আর্থিক সাহায্য না দিলে রাস্তা মুক্ত করা হবে না। কিশোর ছাত্রের বলিষ্ঠ নেতৃত্ব , সৎ সাহস আর স্পষ্টবাদীতায় মুগ্ধ হয়ে হক সাহেব জানতে চাইলেন, “ ছাদ সংস্কার করতে তোমাদের কত টাকা প্রয়োজন?” সাহসী কন্ঠে সে জানাল, “ বার শ’ত টাকা।

মুখ্য মন্ত্রী প্রতুত্তরে বললেন , ‘ ঠিক আছে , তোমরা যাও।আমি তোমাদের ছাদ সংস্কারের ব্যবস্থা আমি করছি। তিনি তাঁর তহবিল থেকে উক্ত টাকা মঞ্জুর করে অবিলম্বে ছাদ সংস্কারের জন্য জেলা প্রশাসককে নির্দেশ দিলেন। এমনি এক দাবী আদায়ের মধ্য দিয়ে যার জীবনযাত্রা শুরু এই ছাত্রনেতা তিনি আর কেউ নন। তিনি হলেন হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি আধুনিক বাংলাদেশের স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।

উল্লেখ যোগ্য যে, বঙ্গবন্ধু সে সময়ে গোপালগঞ্জ মাথুরানাথ ইনিস্টিউট মিশনারি হাই স্কুলে অষ্টম শ্রেণীর ছাত্র ছিলেন।

নারকেল-সুপারী বনবীথির ছায়াঘেরা মধুমতির তীর ছোয়া সবুজ শ্যামল গ্রাম টুঙ্গিপাড়া । তদানীন্তন ভারতীয় উপমহাদেশের বঙ্গ প্রদেশের অন্তর্ভুক্ত ফরিদপুর জেলার গোপালগঞ্জ মহকুমার পাটগাতি ইউনিয়নের এই টুঙ্গিপাড়া গ্রামে ১৯২০ সালের ১৭ মার্চ শেখ মুজিবুর রহমান জন্মগ্রহণ করেন। অনেক জ্ঞানি-গুণী, কবি-সাহিত্যিক, দেশপ্রেমিক-রাজনীতিবিদ জন্ম গ্রহণ করেন ফরিদপুরে।

উল্লেখ যোগ্য ব্যাক্তিত্বের মধ্য যুগীয় প্রখ্যাত কবি আলাওল, পল্লীকবি জসিম উদ্দিন,প্রসিদ্ধ ধর্মীয় উপন্যাস ‘বিষাদ-সিন্ধু’ র রচয়িতা মীর মশররফ হোসেনের জন্ম ফরিদপুরে না হলেও তিনি তাঁর বাল্যকাল কাটিয়েছেন ফরিদপুরে,প্রখ্যাত সাহিত্যিক সুনীল গঙ্গোপাধ্যায় যিনি বর্তমানে পশ্চিমবঙ্গে বসবাস করছেন, ফরায়েজি আন্দোলনের অন্যতম নেতা হাজী শরীয়তুল্লা ও তাঁর ছেলে মুহম্মদ মহসীন দুদুমিয়া, বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ কাজী মোতাহার হোসেন,মুক্তিযোদ্ধা বীরশ্রেষ্ঠ মুন্সি আব্দুর রউফ,চিত্র নায়িকা রোজিনা প্রমুখ।

এই ফরিদপুরেরই কৃতি সন্তান শেখ মুজিব । বাবা শেখ লুৎফর রহমান ও মা সায়েরা খাতুনের সংসারে চার বোন এবং দুই ভাইয়ের মধ্যে তিনি ছিলেন তৃতীয় । তার বড় বোন ফাতেমা, মেজ বোন আছিয়া, সেজ বোন হেলেনা ও ছোট বোন লাইলী বেগম। একমাত্র ছোট ভাইয়ের নাম ছিল শেখ আবু নাসের। তখনকার দিনে বাবা-মা বড় ছেলেকে আদর করে ডাকতেন ‘খোকা।’ সেই হিসেবে শেখ মুজিবের ডাক নাম ছিল ‘খোকা।’ কথিত আছে, শেখ মুজিবুর রহমানের পূর্ব পুরুষ ছিলেন শেখ আউয়াল। যিনি মোঘল শাসন আমলে বাগদাদ থেকে বাংলায় আসেন ইসলাম ধর্ম প্রচার করতে। সেই শেখ আউয়ালেরই বংশধর শেখ আব্দুল হামিদ। শেখ আব্দুল হামিদের পুত্র শেখ লুৎফর রহমান যিনি শেখ মুজিবুর রহমানের পিতা। শেখ লুৎফর রহমান গোপালগঞ্জ দায়রা আদালতের সেরেস্তাদার ( হিসাব রক্ষক) ছিলেন। তিনি ছিলেন স্পষ্টভাষী, ন্যায়পরায়ণ ব্যক্তি। শেখ মুজিবের জীবনে পিতার আদর্শ বিরাট ভূমিকা রেখেছে। অন্যায়, অসত্য, নির্যাতন, ভয়-ভীতির কাছে কখনও মাথা নত করেননি শেখ লুৎফর রহমান ।
তথ্যঃ সংগ্রহ।

সামছুল আলম সাদ্দাম
সহ-সভাপতি
বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, ঢাকা মহানগর উত্তর।

আপনার মন্তব্য দিন

নিউজটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো সংবাদ>>
© All rights reserved © 2017-2020 নিউজ কক্সবাজার ডটকম
Theme Customized By Shah Mohammad Robel